Posts tagged ‘বিজ্ঞানী’

January 31, 2017

বিদ্যুতের বিস্ময়-পুরুষঃ টেসলা

মূল লেখার লিংক
আধুনিক তড়িৎ বিজ্ঞানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নামটি তার- নিকোলা টেসলা। সমগ্র জীবনব্যাপী সৃষ্টি সুখের উল্লাসে মেতে থাকা এক মহৎ হৃদয়ের মহাপুরুষ টেসলা। তাকে ধরা হয় পৃথিবীর সর্বকালের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উদ্ভাবকদের একজন। পৃথিবীর কথিত শক্তি সংকট (Power Crisis) ধারণার অবসান ঘটিয়ে মানুষের জীবন আরও বেশি স্বাচ্ছন্দ্যময় করে তুলতে একজন টেসলাই যথেষ্ট ছিলেন; যদিও চিরন্তন পুঁজিবাদী সমাজব্যবস্থা তা হতে দেয় নি।

নিকোলা টেসলা, বিদ্যুতের বিস্ময়
নিকোলা টেসলা, বিদ্যুতের বিস্ময় : openclipart.com

read more »

Advertisements
December 1, 2016

জগদীশচন্দ্র বসুর ঘর-সংসার

মূল লেখার লিংক
jagadish-page-036

১৮৮৭ সালের ২৭ জানুয়ারি জগদীশচন্দ্রের বিয়ে হয় তাঁর বাবার বন্ধু দুর্গামোহন দাসের দ্বিতীয় কন্যা অবলা দাসের সাথে। বিয়ের পর অবলা দাস স্বামীর পদবী ব্যবহার করে হয়ে যান অবলা বসু।

তৎকালীন অখন্ড বাংলার সমাজ-উন্নয়নে দুর্গামোহন দাসের অবদান ছিল ব্যাপক। বিক্রমপুরের সন্তান দুর্গামোহন বরিশালের ইংরেজি স্কুল থেকে পড়াশোনা করে বৃত্তি নিয়ে কলকাতার হিন্দু কলেজে পড়েন। সেখান থেকে আবার ঢাকা কলেজে গিয়ে পড়াশোনা করেন। ভগবানচন্দ্রের সাথে বন্ধুত্ব তখন থেকেই।

read more »

November 7, 2016

বিজ্ঞানে কনিষ্ঠতম নোবেলজয়ী

মূল লেখার লিংক
উইলিয়াম লরেন্স ব্র্যাগ
উইলিয়াম লরেন্স ব্র্যাগ

মাত্র ১৬ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন এক তরুণ, আর মাত্র তিন বছরের মাথায় পদার্থবিদ্যা, রসায়ন ও গণিতের মতো মৌলিক বিজ্ঞানের তিনটি শাখায় স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছেন। এ রকম কিছু শুনলে আমরা অবাক হব না? কিন্তু যাঁর কথা বলতে বসেছি, তাঁর ক্ষেত্রে এতটুকুতে অবাক হলে চলবে না। কারণ, এরপর তিনি একের পর এক বিস্ময় উপহার দিয়েছিলেন।

read more »

April 8, 2016

নোবেল মেডেল গলানোর সেই ঘটনা

মূল লেখার লিংক
নোবেল মেডেল কি লুকিয়ে ফেলার জন্য?? নাকি সকলকে দেখিয়ে বেড়ানোর জন্য?? নিশ্চয়ই পরেরটা।’দেখিয়ে বেড়ানো’ কথাটা হয়তো ঠিক হলোনা।তবে লুকিয়ে ফেলার জন্যও তো নয়।আর সেকারনেই মেডেলগুলো অনেকেই মিউজিয়মে দিয়ে দেন।কিন্তু মাঝে মাঝে এমন পরিস্থিতিও আসে যে নোবেল মেডেলও লুকানোর প্রয়োজন হতে পারে।আসুন জেনে নিই কেমন সে পরিস্থিতি।

read more »

January 31, 2016

জগদীশচন্দ্র বসু: বিশ্বের প্রথম জীবপদার্থবিজ্ঞানী

মূল লেখার লিংক
jagadish page 007

“অন্ধ ভূমিগর্ভ হতে শুনেছিলে সূর্যের আহ্বান
প্রাণের প্রথম জাগরণে, তুমি বৃক্ষ, আদিপ্রাণ-
ঊর্ধ্বশীর্ষে উচ্চারিলে আলোকের প্রথম বন্দনা
ছন্দোহীন পাষাণের বক্ষ-‘পরে; আনিলে বেদনা
নিঃসাড় নিষ্ঠুর মরুস্থলে।।”

read more »

March 8, 2015

দ্যা ফরগটেন নেইম – নিকোলা টেসলা

মূল লেখার লিংক

সমসাময়িক সময়ের থেকে চিন্তা-চেতনা ও জ্ঞান-বুদ্ধিতে এগিয়ে থাকার সমস্যা ও রয়েছে । কারণ এতে সমাজের মানুষের ভুল বোঝার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে । সময়ের থেকে শত বছর বেশি এগিয়ে থাকা নিকোলা টেসলা ও সেই একই সমস্যার একজন বড় ভুক্তভোগী ছিলেন । নিকোলা টেসলা – এক হারিয়ে যাওয়া মহারথীর নাম ।

read more »

August 29, 2014

একজন আব্দুল্লাহ আল-মুতী

মূল লেখার লিংক

১৯৩০ সাল। বৎসরের প্রথম মাসের প্রথম দিনেই জন্মগ্রহণ করেন বাংলাদেশের একজন স্বরণীয় ব্যাক্তিত্ব, অমর ব্যাক্তিত্ব আব্দুল্লাহ আল-মুতী। মূলত তার নাম আব্দুল্লাহ আল-মুতী শরফুদ্দীন। তবে তিনি আব্দুল্লাহ আল-মুতী নামেই পরিচিত। সিরাজগঞ্জ জেলার ফুলবাড়িতে মা হালিমা শরফুদ্দীন ও পিতা শেখ শরফুদ্দীনের কোল আলোকিত করে আসেন আমাদের আব্দুল্লাহ আল-মুতী। পাঁচ ভাই ও ছয় বোনের মাঝে সবার বড় ছিলেন তিনি।

read more »

August 22, 2014

আসুন জানি সেই আবিষ্কারকদের কথা যাদের আবিষ্কার কেড়ে নিয়েছিল তাদেরই প্রাণ!

মূল লেখার লিংক
প্রত্যেক আবিষ্কারকই তার আবিষ্কার নিয়ে গর্ববোধ করেন। আবিষ্কারক মাত্রই তার আবিষ্কারের মধ্য দিয়ে অমরত্ব লাভ করেন। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে পৃথিবীতে এমন বেশ কয়েকজন আবিষ্কারক রয়েছেন যারা প্রাণ হারিয়েছেন নিজের আবিষ্কারের হাতে। চলুন দেখে জেনে নেই এমন কিছু হতভাগ্যের কথা!

হেনরি উইনস্টেনলিঃ

read more »

February 21, 2014

আচার্য্যকে নিয়ে অল্পকথা

মূল লেখার লিংক

স্কুলের পাঠ্যপুস্তকে পড়ানো হয়, বিজ্ঞানী জগদীশ চন্দ্র বসু আবিষ্কার করেছেন যে, গাছেরও প্রাণ আছে। তার মানে কি এই যে, আচার্য্য জগদীশ চন্দ্র বসু বলার আগে মানুষ জানতোই না, উদ্ভিদরাও জীবজগতের অন্তর্ভূক্ত!

read more »

November 23, 2013

আলফ্রেড নোবেলের বিস্ফোরক ভালোবাসা – প্রথমার্ধ

মূল লেখার লিংক

বর্তমান পৃথিবীতে সবচেয়ে সম্মানজনক পুরষ্কারের নাম নোবেল পুরষ্কার। ১৯০১ সাল থেকে শুরু হয়ে প্রতিবছর পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসাবিজ্ঞান, সাহিত্য ও শান্তিতে অবদানের জন্য নোবেল পুরষ্কার দেয়া হয়। ১৯৬৮ সাল থেকে নোবেলের সম্মানে অর্থনীতিতেও পুরষ্কার দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসাবিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান, ও রসায়নের গবেষণায় সাফল্যের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি নোবেল পুরষ্কার।

read more »

August 4, 2013

টমাস আলভা এডিসন [১৮৪৭-১৯৩১]

মূল লেখার লিংক

এডিসনের জন্ম ১৮৪৭ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী কানাডার মিলানে। তার পিতা ছিলেন ওলন্দাজ বংশোদ্ভূত।এডিসন ছিলেন স্যামুয়েল অগডেন এডিসন ও ন্যন্সি ম্যাথিউস এলিয়টের সপ্তম এবং সর্বশেষ সন্তান।

read more »

April 2, 2013

একটি অসাধারণ মুভি: Einstein and Eddington

মূল লেখার লিংক

বিজ্ঞানের ইতিহাস কিংবা বিজ্ঞানীদের জীবনী নিয়ে খুব কম মুভি বানানো হয়েছে। Einstein and Eddington এই ধাঁচের একটি মুভি। এই মুভিতে জিনিয়াস আইনস্টাইনের General theory of relativity নিয়ে আইনস্টাইনের পথচলাকে তুলে ধরা হয়েছে। এতে দেখা যায় বিজ্ঞানের জন্য আইনস্টাইনের চরম ত্যাগ স্বীকার। আইনস্টাইন ম্যাক্স প্লাঙ্কের অনুরোধে জার্মানির বার্লিন ইউনিভার্সিটিতে প্রফেসর হিসেবে যোগ দেন।এই জন্যে আইনস্টাইনকে তাঁর পরিবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ছেড়ে আসতে হয়।এই দূরত্ব পরবর্তীতে প্রথম স্ত্রী মিলেভার সাথে তাঁর বিচ্ছেদের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

read more »

December 1, 2012

উপমহাদেশের প্রখ্যাত রসায়নবিদ, শিক্ষাবিদ ও লেখক ড. মুহম্মাদ কুদরাত ই খুদা

মূল লেখার লিংক
কুদরাত-এ-খুদা ১৯০০ সালের ১ ডিসেম্বর নানার বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের মাড়গ্রামের সম্ভ্রান্ত পীর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা সৈয়দ শাহ সুফী খোন্দকার আবদুল মুকিত ছিলেন ভারতের মুর্শিদাবাদ ও বর্ধমান জেলার সীমান্ত মৌ গ্রামের অধিবাসী। মা সৈয়দা ফাসিয়া খাতুন ছিলেন গৃহিনী। জনাব আবদুল মুকিত আঠারো শতকের শেষদিকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ. পাস করেছিলেন। সরকারি চাকুরি তাঁর জন্য সহজলভ্য ছিল, কিন্তু তিনি তা না করে ধর্মচর্চায় মনোনিবেশ করেছিলেন। বাবা-মায়ের সাত সন্তানের মধ্যে কুদরাত-এ-খুদা ছিলেন দ্বিতীয় সন্তান।

read more »

October 23, 2012

নীলস বোর ও একটি মজার কাহিনী

মূল লেখার লিংক

নীলস বোর এর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষারত সময় পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষার প্রশ্নোত্তর…….. প্রশ্নঃ একটি ব্যারোমিটারের সাহায্যে কিভাবে একটি গগণচুম্বী বহুতল ভবনের উচ্চতা নির্ণয় করা যায় বর্ণনা কর ?

উত্তরঃ “আমাদেরকে ব্যারোমিটারের মাথায় একটা দড়ি বাধতে হবে। এরপর ব্যারোমিটারটিকে ভবনের ছাদ থেকে নীচে নামিয়ে মাটি পর্যন্ত নিতে হবে।তাহলে ব্যারোমিটারের দৈঘ্য আর দড়ির দৈঘ্য যোগ করলেই ভবনের উচ্চতা পাওয়াযাবে।”

এরকম সোজাসাপটা উত্তর পরীক্ষককে এমন রাগিয়ে দিল যে তিনি ততক্ষণাত ছাত্রটিকে ফেল করিয়ে দিলেন। এরপর ছাত্রটি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে আবেদন করল যে তার উত্তরটি সম্পূর্ণ ঠিক ছিল, তখন বিশ্ববিদ্যালয় একজন নিরপেক্ষ বিচারক নিয়োগ করলেন ব্যাপারটা মীমাংসা করার জন্য। বিচারক দেখলেন, উত্তরটি সম্পূর্ণ ঠিক, কিন্তু পদার্থবিজ্ঞানের কোন উল্লেখযোগ্য জ্ঞান উত্তটির মাঝে অনুপস্থিত। তাই তিনি ব্যাপারটির মীমাংসা করার জন্য ঠিক করলেন, ছাত্রটিকে ডাকবেন এবং তাকে ছয় মিনিটসময় দিবেন।

read more »

October 1, 2012

নারী বিজ্ঞানী: জানেন কি তাদের কথা?

মূল লেখার লিংক
সেই ছেলেবেলা থেকে বিজ্ঞান শেখার ফাঁকে ফাঁকে আমরা শিখে এসেছি বিভিন্ন বিজ্ঞানীর নাম। ল্যাভয়শিয়ে হোক আর অ্যান্থনি ফন লিউয়েনহ্যুক অথবা কালের আইনস্টাইন আর স্টিফেন হকিং-বিজ্ঞানের সব কিছুতেই যেন খুঁজে পাই শুধু পুরুষদের নাম।

তবে কি মেয়েদের বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে চোখে পড়ার মতো অবদান নেই?

এই প্রশ্নের জবাবই চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়ার জন্য এগিয়ে এসেছেন একজন মিনিম্যালিস্ট। মিনিম্যালিস্ট হচ্ছেন সেই সব মানুষ যারা শিল্প বা সঙ্গীতের মাধ্যমে খুব সাধারণ কোন উপায়ে কোন কিছু প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন করে থাকেন। তাদের হাতিয়ার হচ্ছে তাদের শিল্প, যেখানে কোন জিনিস বোঝানোর জন্য  সূক্ষতার চেয়ে শুধুমাত্র বোঝানোর উপাদানগুলোকেই গুরুত্ব দেয়া হয়।

এমন একজন মিনিম্যালিস্ট ‘হাইড্রোজেন’ ছয়টি পোস্টার প্রকাশ করেছেন, যাতে ছয়জন নারী বিজ্ঞানীর অসাধারণ অবদান মনে করিয়ে দেয়া হয়েছে।

read more »