Posts tagged ‘বাংলাদেশ’

July 30, 2017

জামরঃ ফরাসি বিপ্লবে বাংলার বিপ্লবী

মূল লেখার লিংক
দিনের পর দিন কলুর বলদের মতো খেটে মরবে সমাজের সিংহভাগ জনগণ। আর মনুষ্যসৃষ্ট জাতিভেদের দোহাই দিয়ে ফায়দা লুটে লাভের গুঁড় খাবে সংখ্যালঘু অভিজাত সমাজ। সমাজের আপমর জনতা মাথার ঘাম পায়ে ফেলেও দিনাতিপাত করতে বাধ্য হয় সতত; অন্যদিকে আলস্যসকাশে মহানন্দে থাকছে এক বিশেষ সিন্ডিকেট শ্রেণী। লঘু পাপকে গুরু দন্ডে প্রতিবিহিতের বরাদ্দ কেবল দলিতের নোনতা ললাটের জন্যে; অথচ বিচারের বাণী জাত্যাভিমানের মারপ্যাঁচে হারিয়ে যায় সভ্যতার আস্তাকুঁড়েতে। কঠোর পরিশ্রমের পরেও করের অন্যায় বোঝা চাপে শুধু মজলুমের ঘাড়ে আর জালিমের ধন-ভান্ডার সমৃদ্ধির পথে বলগা হরিণের ন্যায় ছুটে চলে।

সমাজে যখন এই উল্টো চলার নীতি পরিগৃহীত হয়, তখন প্রতিবাদী প্রতিরোধ প্রতিটি পরিক্লিষ্ট প্রকোষ্ঠে প্রতিধ্বনিত হয়। অত্যাচারিতের জর্জর পিঠ যখন দেয়ালে ঠেকে গিয়ে তাকে অস্তিত্বের সংকটে ফেলে দেয়, জীবনের তাগিদে সে তখন প্রাণের মায়ার বীরোচিত বিসর্জনেও থাকে অকুতোভয়। ফরাসিরা ভিতরে ভিতরে ফুঁসে উঠেছিল; দীর্ঘদিনের সঞ্চিত ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ তখন সময়ের ব্যাপার ছিল। অসহ্য মাত্রায় নিষ্পেষিত জনগণ একাট্টা হয়ে ওঠে; হয়ে ওঠে প্রতিবাদী। তাদের প্রতিবাদী সুরে ওঠে বিপ্লবের জাগ্রত রাগিণী। নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, বলছি ইউরোপের দিনবদলের পাঞ্জেরী ফরাসি বিপ্লবের কথা। এটা তো আমরা সবাই জানি যে, অষ্টাদশ শতকের ফরাসি বিপ্লব সমগ্র বিশ্বের রাষ্ট্র ব্যবস্থায় এক অভূতপূর্ব প্রভাব (সেটা কম হোক বা বেশি) রেখেছিল। কিন্তু আমাদের কি জানা আছে, সেই দিন বদলের বসন্তে বিশেষ অবদান রেখে ইতিহাসের পাতায় চিরস্মরণীয় হয়ে আছে এক বাঙালি যুবা! সমুদ্রসকাশে বড় হয়ে ওঠা চট্টগ্রামের জামর ছিল ফরাসি বিপ্লবের এক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র! আসুন, পরিচিত হই তৎকালীন সুবা বাংলার বাঙালি জামরের সাথে।


বাস্তিল দুর্গে ফরাসি জনতার অধিকারের বিপ্লব

read more »

Advertisements
April 28, 2017

স্কাইস্ক্র্যাপারের কারিগর ড. ফজলুর রহমান খান

মূল লেখার লিংক
সুদূর মার্কিন মুলূকের তৃতীয় বৃহত্তম শহর শিকাগো। শহরটিতে মেঘ ফুঁড়ে দাঁড়ানো ভবনের সংখ্যা মন্দ নয়। কিন্তু একটি ভবনকে আলাদা করে চিনে নিতে কষ্ট হয় না কারো, স্কাইস্ক্র্যাপারগুলোর মধ্যে সবাইকে ছাড়িয়ে সে। ভবনটির আদি নাম সিয়ার্স টাওয়ার, মালিকানা বদলের কারণে বর্তমান নাম উইলিস টাওয়ার। ১১০ তলা বিশিষ্ট এ ভবনটি ১৯৭৩ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত শুধু শিকাগো শহরের নয়, পুরো পৃথিবীর উচ্চতম ভবন ছিলো। আর সেই সর্বোচ্চ ভবনটির রূপকার ছিলেন একজন বাংলাদেশী! তিনি শুধু কোনো বাংলাদেশীর ঔরসে জন্ম নিয়েছিলেন বলে নয়, উনার বেড়ে ওঠার পুরোটাই বাংলাদেশে। বলছিলাম ক্ষণজন্মা প্রকৌশলী ফজলুর রহমান খানের কথা, যাকে ‘স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের আইনস্টাইন’ বলা হয়!

উইলিস টাওয়ার বা তৎকালীন সিয়ার্স টাওয়ার
উইলিস টাওয়ার বা তৎকালীন সিয়ার্স টাওয়ার

read more »

April 10, 2017

মোহাম্মদ আশরাফুল: একটি তারার নিভে যাওয়ার গল্প

মূল লেখার লিংক

বনশ্রীর নিজ বাড়িতে আশরাফুল;  ছবিসূত্রঃ espncricinfo.com

অ্যাশ, লিটল মাস্টার কিংবা বাংলাদেশের ‘আশার ফুল’, তিনি মোহাম্মদ আশরাফুল। বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা তাকে কতটা ভালবাসে তা লিখে প্রকাশ করা দুঃসাধ্য। কিন্তু মানুষের এই অপরিমেয় ভালবাসার প্রতিদান নিজের ক্যারিয়ারে প্রতিফলিত করতে পারেননি আশরাফুল। রূপকথার মতোই যিনি ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন, শেষটা করেছিলেন নামের সাথে বড্ড অবিচার করে। ১২ বছরের লম্বা আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার তার অতটাও রঙিন নয়। টেস্টে তার গড় ২৩, একদিনের ক্রিকেটে মাত্র ২২।

read more »

March 13, 2017

সাইফুল আজম: বাংলার আকাশের এক দুঃসাহসী ‘লিভিং ঈগল’

মূল লেখার লিংক
আজ থেকে প্রায় অর্ধশতাব্দী আগের এক দিন। ১৯৬৭ সালের জুনের ৫ তারিখ। ছয় দিনব্যাপী আরব-ইসরাইল যুদ্ধ শুরু হয়েছে সেদিন। সময় তখন বেলা ১২টা বেজে ৪৮ মিনিট। চারটি ইসরাইলি জঙ্গী বিমান ধেয়ে আসছে জর্ডানের মাফরাক বিমান ঘাঁটির দিকে। কিছুক্ষণ আগেই আকাশ থেকে প্রচণ্ড আক্রমণে গোটা মিশরীয় বিমান বাহিনীর যুদ্ধ-সরঞ্জাম গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। এবার জর্ডানের ছোট্ট বিমান বাহিনীর উপর আক্রমণ শাণাচ্ছে ইসরাইলি বিমানগুলো।

ঠিক ঐ মুহূর্তে ইসরাইলি সুপারসনিক ‘ডাসল্ট সুপার মিস্টেরে’ জঙ্গী বিমানগুলো আরবীয় আকাশে ভয়ঙ্করতম আতঙ্কের নাম। প্রচণ্ড গতি আর বিধ্বংসী ক্ষমতা নিয়ে সেগুলো ছারখার করে দিতে পারে আকাশপথের যে কোনো বাধা কিংবা ভূমিতে অবস্থানকারী যে কোনো টার্গেটকে। তবু তাদের পথ রোধ করতে মাফরাক বিমান ঘাঁটি থেকে বুক চিতিয়ে উড়াল দিল চারটি ‘হকার হান্টার’ জঙ্গী বিমান। শক্তির দিক থেকে ইসরাইলি বিমানের কাছে সেগুলো কিছুই নয়। মুহূর্তেই উড়ে যেতে পারে এক আঘাতে, তাতেই গুঁড়িয়ে যাবে তাদের প্রতিরোধের স্বপ্ন।

কিন্তু ইতিহাস দুঃসাহসের পূজারী। শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলল মাফরাকের যোদ্ধারা। জর্ডানের একটি হকার হান্টারে পাইলটের সিটে বসে আছেন অকুতোভয় এক যুবক, এই পাল্টা প্রতিরোধের প্রধান সেনানী। ঈগল পাখির নিশানা তার সুতীক্ষ্ণ দু’চোখে। আকাশপথের সম্মুখ সমরেও যার স্নায়ুচাপ অবিচল, দুধর্ষ প্রতিপক্ষের সামনে যার মনোবল ইস্পাতকঠিন। সেই হকার হান্টার থেকেই সে যুবক নির্ভুল নিশানায় ঘায়েল করলেন দুই ইসরাইলি সেনাকে। ঐ মুহূর্তে কল্পনাতীত এক কাণ্ডও ঘটালেন, অব্যর্থ আঘাতে ভূপাতিত করে ফেললেন একটি ইসরাইলি ‘সুপার মিস্টেরে’। আরেক আঘাতে প্রায় অকেজো করে দিলেন তাদের আরেকটি জঙ্গী বিমান, ধোঁয়া ছাড়তে ছাড়তে সেটি ফিরে গেল ইসরাইলি সীমানায়। চারটি হকার হান্টারের প্রতিরোধের মুখে পড়ে ব্যর্থ হলো অত্যাধুনিক ইসরাইলি বিমানগুলো।

শিল্পীর কল্পনায়, হকার হান্টার থেকে সেই পাইলট দেখছেন তার আঘাতে পড়ে যাচ্ছে ইসরাইলি সুপার মিস্টেরে বিমান। সূত্র: bangladeshdefencejournal.comshilp

read more »

December 22, 2016

আমাদের ঢাকা আর ফিদেলের হাভানা

মূল লেখার লিংক
ঢাকায় এমন অনেক কিছুই আছে, যা হাভানায় দেখা যায় না
এক দশক আগে যখন ত্রিমহাদেশীয় সম্মেলনের সূত্রে কিউবায় গিয়েছিলাম, তখন ফিদেল কাস্ত্রোর অসুস্থতার শুরু। তাঁর সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। আমার বেশি আগ্রহ ছিল কিউবার সমাজের মানুষের অন্তর্নিহিত শক্তির অনুসন্ধান। সে কারণে ফিদেলের সহযাত্রী অনেক মানুষের সঙ্গে কথা বলেছি। ঘুরেছি অনেক স্থানে, প্রতিষ্ঠানে। চারদিকে সমুদ্র আর একটু দূরের ভয়ংকর প্রতিপক্ষ যুক্তরাষ্ট্রের হুমকির মধ্যে কিউবা কীভাবে মানুষ ও প্রকৃতিকে কেন্দ্রে রেখে ভিন্ন এক সমাজ গড়ে তুলেছে, তা এক বিশাল প্রশ্নই বটে।

read more »

December 16, 2016

জাতীয় স্মৃতিসৌধের স্থপতিকে কি আমরা মনে রেখেছি?

মূল লেখার লিংক
জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনে দাঁড়িয়ে স্থপতি সৈয়দ মাইনুল হোসেন। ছবিটি ২০০৬ সালের মার্চে তোলা। ছবি: জাহিদুল করিম
জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনে দাঁড়িয়ে স্থপতি সৈয়দ মাইনুল হোসেন। ছবিটি ২০০৬ সালের মার্চে তোলা। ছবি: জাহিদুল করিম

রাজধানী ঢাকা থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে সাভারে সগর্বে দাঁড়িয়ে আছে যে জাতীয় স্মৃতিসৌধ, প্রতিবছর স্বাধীনতা দিবস ও বিজয় দিবসে যেখানে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সরকারের মন্ত্রী ও অন্য গণমান্য ব্যক্তিবর্গের পদধূলি পড়ে, সশস্ত্র বাহিনীগুলোর বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজের মধ্য দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিতর্পণ করা হয়, সেই অপূর্ব স্থাপত্যকর্মটির শিল্পীকে এ দেশের কজন মানুষ চেনেন আমরা জানি না।

read more »

October 10, 2016

প্রমীলার প্রতীক্ষা

মূল লেখার লিংক
স্বামী নজরুল ইসলামের সঙ্গে প্রমীলা। কৃষ্ণনগর, ১৯২৮। ছবি: সংগৃহীত
স্বামী নজরুল ইসলামের সঙ্গে প্রমীলা। কৃষ্ণনগর, ১৯২৮। ছবি: সংগৃহীত
পোশাকি নাম আশালতা সেনগুপ্ত। ডাকনাম দোলোনা। বড়রা আরও সংক্ষেপ করে ডাকেন দুলি। কিন্তু সমাজে তাঁর প্রধান—ভুল বললাম—তাঁর একমাত্র পরিচয় তিনি নজরুল ইসলামের স্ত্রী—প্রমীলা। নিশ্চয় হাসতে জানতেন তিনি, হাসতেনও; কিন্তু তাঁর যে কটি ছবি দেখা যায়, তার কোনোটিতে তাঁর মুখে হাসি তো দূরের কথা, হাসির রেখা পর্যন্ত দেখা যায় না।

read more »

December 24, 2015

ডাবল সেঞ্চুরি করেও পরের ম্যাচেই বাদ!

মূল লেখার লিংক
বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজের শেষ টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে মাঠ ছাড়ছেন গিলেস্পি। সংগৃহীত ছবি
বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজের শেষ টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে মাঠ ছাড়ছেন গিলেস্পি। সংগৃহীত ছবি
পাঁচ বছর পর টেস্ট দলে জায়গা পেয়েই ২৪৫ রানের এক ইনিংস খেলেছিলেন শোয়েব মালিক। ‘রাজকীয় প্রত্যাবর্তন’ যাকে বলে।

read more »

December 9, 2015

যে রেকর্ডে ডি ​ভিলিয়ার্সের পাশে জাভেদ ওমর!

মূল লেখার লিংক
ডি ভিলিয়ার্স পরেননি কিন্তু জাভেদ ওমর ​পেরেছিলেন! ছবি: প্রথম আলো।
শিরোনামে একটা ‘অন্যায়’ করা হলো। এবং এক দিক দিয়ে দেখলে, এই ‘অন্যায়’-এর শিকার তিনি হয়েছেন পুরো ক্যারিয়ারেই। শিরোনাম হওয়া উচিত ছিল, ‘যে রেকর্ডে জাভেদের পাশে ডি ভিলিয়ার্স’।

read more »

November 12, 2015

ক্রিকেট আগ্রাসনের দৃশ্যপটে বাংলাদেশও

মূল লেখার লিংক
১৯৭৬ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে কিউই ব্যাটসম্যান পিটার প্যাথেরিককে আউট করতে ৯ ​জন ফিল্ডার দিয়ে স্লিপ আর গালি সাজিয়েছিলেন অস্ট্রে​লীয় অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেল। বোলার ছিলেন ডেনিস লিলি। ছবি: সংগৃহীত
ছবিঃ ১৯৭৬ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে কিউই ব্যাটসম্যান পিটার প্যাথেরিককে আউট করতে ৯ ​জন ফিল্ডার দিয়ে স্লিপ আর গালি সাজিয়েছিলেন অস্ট্রে​লীয় অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেল। বোলার ছিলেন ডেনিস লিলি।

ব্যাটসম্যান বোলারকে মোকাবিলা করছেন, তাঁকে ঘিরে ধরেছেন ফিল্ডাররা—ক্রিকেট আগ্রাসনের অন্যতম সেরা দৃশ্য এটি। এগারো জনের দলের আট-নয়জনই যদি ব্যাটসম্যানকে ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকেন, তাহলে তিনি যত বড় দুঁদে ব্যাটসম্যানই হন না কেন চাপে পড়ে যেতে বাধ্যই।

read more »

June 28, 2015

আমাদের এন্টোনিও

মূল লেখার লিংক
২০৬৫ সাল……

ভিক্টোরিয়ার আন্তঃপ্রদেশ ক্রিকেট শিল্ডের ফাইনাল ম্যাচ। শেষ বলে দরকার ৪ রান।ব্যাটিংয়ে ভিক্টোরিয়া হিরোজ এর ক্যাপ্টেন গ্রাহাম আর বোলিংয়ে মার্লবরো ইউনাইটেডের বাংলাদেশী বংশদ্ভুত ১৬ বছরের তরুন তুর্কি খালিদ।টান-টান উত্তেজনা। কে জিতবে?? বল করল খালিদ। পুরা স্টেডিয়াম ফেটে পড়ল উল্লাসে।

read more »

January 20, 2015

মিষ্টি রসের গাঁ

মূল লেখার লিংক

গ্রামের নাম পুষ্পকাটি। সাতক্ষীরা জেলা শহর থেকে দূরত্ব ১০ কিলোমিটারের মতো। নামের সঙ্গে ভারি মিল গ্রামটির। সবুজ গ্রামটি যেন রূপ রসে ভরপুর। নিশ্বাসে মিষ্টি গন্ধ। সৌন্দর্যও চোখজুড়ানো।

read more »

March 11, 2014

বাংলাদেশের দুষ্প্রাপ্য কিছু ফটোগ্রাফের কালেকশন -(দ্বিতীয় পর্ব)

মূল লেখার লিংক

read more »

November 1, 2013

দুরন্ত তরুন: বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান

মূল লেখার লিংক

ছেলেটি সবে আঠারো পেরিয়ে উনিশে পা দিয়েছিল।
সদ্য তারুন্যে প্রবেশ করা এই তরুনের মাঝে ছিল দেশের প্রতি, দেশের মানুষের প্রতি অতল ভালোবাসা।
দেশের প্রতি, দেশের মানুষের জন্য তাঁর ভালোবাসাটা এতটাই বেশি ছিল যে, জীবন দিতেও দ্বিধাবোধ করেনি।
মাত্র উনিশ বছর বয়সে দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গকারী এই তরুনটি হলেন, বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান।

read more »

May 3, 2013

গার্মেন্টসে আর না

মূল লেখার লিংক

একটি এনজিওতে কাজ করেন কাশফিয়া ফিরোজ। রানা প্লাজার ধস থেকে বেঁচে ফিরে আসা মানুষদের বিভিন্ন রকম সাহায্য দিতে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কয়েকদিন আগে তিনি গিয়েছিলেন সাভারের হাসপাতালগুলোতে। কাজের ফাঁকে কথা বলেছেন আহতদের সঙ্গে। যত না হয়েছেন মর্মাহত, তাদের কথা শুনে তারচেয়েও বেশি হয়েছেন হতবাক। একটি দুর্ঘটনা পরিবর্তন করে দিয়েছে তাদের চিন্তাভাবনা, জীবনধারা। সেই অভিজ্ঞতাই জানাচ্ছেন তিনি।

read more »