Posts tagged ‘ইসলাম’

July 30, 2017

মানসা মুসা: বিশ্বের সর্বকালের সেরা ধনী ব্যক্তি

মূল লেখার লিংক
বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের কথা ভাবলেই আমাদের মনে পড়ে বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেট অথবা রথসচাইল্ড ফ্যামিলি সহ বিংশ শতাব্দীর নব্য ধনীদের কথা। কিন্তু আমরা অনেকেই হয়তো জানি না, চৌদ্দ শতকের মালির মুসলিম শাসক মানসা মুসাকে মনে করা হয় বিশ্বের সর্বকালের সেরা ধনী ব্যক্তি। মূল্যস্ফীতি হিসেব করে তার তত্‍কালীন সম্পত্তিকে বর্তমান মুদ্রায় রূপান্তর করলে সেটার পরিমাণ হবে প্রায় ৪০০ বিলিয়ন ডলার, যেখানে রথসচাইল্ড ফ্যামিলির সম্পত্তির মূল্য ৩৫০ মিলিয়ন ডলার, আর বিল গেটসের সম্পত্তির পরিমাণ মাত্র ৯০ বিলিয়ন ডলার!


কার্টুনিস্টের দৃষ্টিতে মানসা মুসা; ছবিসূত্র: Bizna Kenya

মানসা মুসার প্রকৃত নাম প্রথম মুসা কেইতা (Musa Keita I)। মানসা হচ্ছে সে সময়ের মালির রাজাদের উপাধি, যার অর্থ হচ্ছে রাজা বা সম্রাট। মুসা ছিলেন দশম মানসা অর্থাৎ মালি সাম্রাজ্যের দশম সম্রাট। মুসার জন্ম ১২৮০ সালে। ১৩১২ সালে, মাত্র ৩২ বছর বয়সে তিনি ক্ষমতায় আরোহণ করেন।

read more »

December 9, 2016

আফ্রিকা ও ইসলাম

মূল লেখার লিংক
ছোটবেলায় ক্লাস সেভেনের বইতে আমরা আফ্রিকার পরিচয় পাই,আফ্রিকা অন্ধকারাচ্ছন্ন মহাদেশ।
আফ্রিকাতে বাস করে কালো কালো মানূষের দল,আর ঝাকে ঝাকে পশু,বিচিত্র সব পশুপাখির জন্য আফ্রিকাকে ডাকা হয় বৃহদাকার চিড়িয়াখানা।
আফ্রিকা ছিল মানবজাতির অগম্য,স্ট্যানলি,লিভিংস্টোনের মত পর্যটকদের অভিযানের ফলে আফ্রিকা সভ্যজগতের কাছে পরিচিত হয়।
এই সভ্য জগতের মানুষ কারা???
উত্তর সহজ,সাদা ইউরোপ।

read more »

August 18, 2015

ইসলামের স্বর্ণযুগ – পর্ব ১

মূল লেখার লিংক
কোন যুগ বা জাতিকে বুঝতে হলে আমাদের সেই যুগ বা জাতির দর্শনকে বুঝতে হবে, আবার সেই দর্শনকে বুঝতে গেলে সেই যুগ বা জাতির অতীত-বর্তমান তথা সামগ্রিক অবস্থা বুঝতে হবে। এখানে একটি পারস্পরিক কার্য-কারণ সম্পর্ক রয়েছে। মানবজীবনের পারিপার্শিক অবস্থা তাদের দর্শন নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আবার বিপরীতক্রমে তাদের দর্শন, তাদের পারিপার্শিক অবস্থা নির্ধারণে আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যুগযুগব্যাপী এই মিথষ্ক্রিয়াটি চলছে।

read more »

January 28, 2013

মুসলিম-অমুসলিম সম্পর্কঃ জানা, অজানা

মূল লেখার লিংক
বছর দুয়েক আগে লোকচক্ষুর অন্তরালে ঘটে যাওয়া একটি ঘটনার কথা মনে পড়ছে। চেচনিয়ার মুসলিম তথা ইসলামের বিরুদ্ধে মিশন নিয়ে কাজ করেছিলো কেজিবির এক সিক্রেট এজেন্ট যার নাম ছিলো আলেক্সান্ডার লিটভিনেনকো। দীর্ঘদিন ইসলামের বিরুদ্ধে কাজ করার পর এক সময় কেজিবি ছেড়ে দেন এবং অজ্ঞাত এক বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হন তিনি। তাঁকে লন্ডনের এক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসার পরও তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। এ সময় একদিন তাঁর বাবাকে তিনি জানান মৃত্যু হলে তাকে যেন মুসলিম রীতিতে জানাজা ও কবর দেয়া হয়। পরবর্তিতে বাবাকে তিনি খুলে বলেন যে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেছেন। ইসলামের দীর্ঘদিনের শত্রু এই ব্যক্তিটিকে কি তাহলে জেনে শুনেই বিষ দেয়া হয়েছিলো ইসলামের দিকে ঝুঁকে পড়ায়-এমন প্রশ্ন উঠে আসে বিশ্বজুড়ে, তবে তা ধামাচাপা পড়ে যায় দ্রুত।

আলেক্সান্ডার লিটভিনেনকোর কথা মনে পড়লো দেশের একজন স্বনামধন্য মানবতাবাদী বুদ্ধিজীবীর কথার প্রেক্ষিতে। মুসলিমের নাম ধারণ করেও নানা কথার মারপ্যাঁচে তিনি ইসলামকে সরাসরি আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে বলছেন, “ধর্মীয় গোঁড়ামির মূলোৎপাটন আমরা করবোই”।

read more »