Archive for October, 2013

October 30, 2013

পৃথিবীর সবচেয়ে গোলাকার বস্তু এবং ভরের নতুন আদর্শ

মূল লেখার লিংক
roundest
উপরের ছবিতে যেই গোলকটি দেখা যাচ্ছে এটা পৃথিবীর সবচেয়ে নিখুঁত গোলাকার বস্তু। সম্প্রতি প্রায় ১ মিলিয়ন ইউরো এবং হাজার হাজার কর্মঘন্টা খরচ করে এটা তৈরি করা হয়েছে। এই গোলকটির পুরোটাই সিলিকন-২৮ পরমানুর একটি মাত্র কৃষ্টাল থেকে তৈরি করা হয়েছে। এবং এর ভর পুরোপুরি ১ কেজি।

read more »

Advertisements
October 30, 2013

সিনেমায় টু-ডি নাকি থ্রি-ডি ?

মূল লেখার লিংক
Life-of-Pi

অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড’, ‘ক্ল্যাশ অফ দ্য টাইটানস’ আর ‘হাউ টু ট্রেন ইওর ড্র্যাগন’- এই তিনটে ছবিরই ‘টু-ডি’ আর ‘থ্রি-ডি’ সংস্করণ পর-পর চারশো জন ছাত্রছাত্রীকে দেখিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষক এল মার্ক ক্যারিয়ার এক বিস্ময়কর সিদ্ধান্তে উপনীত হলেন সম্প্রতি৷ এই সিদ্ধান্তটির ওয়ান-লাইনার এরকম: ‘আপাতদৃষ্টিতে দু’টি সংস্করণ প্রায় এক হলেও থ্রি-ডি অস্বস্তিকর৷’ মার্ক ক্যারিয়ারের এই সিদ্ধান্তে বিশদে যাওয়ার আগে ‘থ্রি-ডি’ বা ‘স্টিরিওস্কোপিক’ সিনেমার প্রাথমিক ব্যাপারটা একটু বুঝে নেওয়া যাক৷

read more »

October 30, 2013

নীল তিমি – সর্বকালের সর্ববৃহৎ প্রানী

মূল লেখার লিংক
এক সময় সাগরে নীল তিমির পরিমান ছিল এখনকার চেয়ে অনেক অনেক বেশী। আমরা মানুষেরা বিগত বছরে এত বেশী নীল তিমি মেরেছি যে বর্তমানে আনুমানিক ১০০০০ নীল তিমির অস্তিত্ব পাওয়া যায়। নীল তিমি এখন আন্তর্জাতিকভাবে সংরক্ষন করা হচ্ছে এবং শিকার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাই কিছু কিছু জায়গাতে এদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, যদিও খুব নগন্যহারে। কেউ যদি সারা বছর ধরেও সাগর চষে বেড়ায়, তারপরেও একটা নীল তিমির দেখা নাও পেতে পারে।

নীল তিমি আসলে অনেক অনেক বড়। হাতির চেয়ে বড়, সব প্রকার তিমির চেয়ে বড়, এমনকি প্রাগৈতিহাসিক যুগের ডাইনোসরের চেয়েও বড়। এই পৃথিবীতে এযাবত কাল পর্যন্ত যত প্রানী ছিল বা আছে, তার ভিতর নীল তিমি সবচেয়ে বড়।

October 30, 2013

বীগল তরণীর বিষম রহস্য

মূল লেখার লিংক

আপামর পাঠকমহোদয় ও আবদেরে বাড্ডেবালিকা সুরঞ্জনার জন্য কুইজ,

সেই প্রবাদপ্রতিম সফরে বীগল জাহাজের প্রকৃতিবিদের পদে কে নিযুক্ত ছিলেন?

যাঁরা ঝটপট করে ‘ডারউইন’ উত্তর দিতে যাচ্ছেন, তাঁদের জন্য সতর্কতা, অত সহজ উত্তর হলে নিশ্চয়ই প্রশ্নটা করতাম না!

সম্পূরক প্রশ্ন: যদি ডারউইন সেই জাহাজের নিয়োগপ্রাপ্ত প্রকৃতিবিদ না হয়ে থাকেন, তবে তিনি কোন শালীন বা অশালীন উদ্দেশ্যে সেই জাহাজে উঠেছিলেন?

read more »

October 30, 2013

বিটি বেগুন- বাংলাদেশে অনুমোদিত প্রথম জিএম উদ্ভিদ: অপপ্রচারণা, সমালোচনা এবং কিছু জবাব

মূল লেখার লিংক
গত ২৮ অক্টোবর বাংলাদেশের কৃষির জন্য একটা বিশেষ দিন। ২৯তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ সরকার দেশে জিএমও বা জিনেটিকালি মডিফাইড অর্গানিজম হিসেবে একধরনের বেগুন (বিটি বেগুন) কে বাংলাদেশে চাষের অনুমতি দিল। কিন্তু এর আগে এবং পরে কিছু মহল থেকে চরম বিরোধিতা এবং প্রতিবাদ আসতে শুরু করল। বিশেষ করে প্রাকৃতিক কৃষি ব্যবস্থার সমর্থনের যেসব এনজিও বাংলাদেশে আছে তাদের কাছ থেকে। নতুন জিনিস গ্রহণ করতে দ্বিধা মানুষের সবসময়েই থাকে। আবার নতুন জিনিস যাচাইও করে নেয়া উচিত। কিন্তু জিএমও কি বা বিটি বেগুন কি সেটা না জেনে বা বুঝে বা নিজেদের লাভের জন্য কোন এনজিও’র প্রোপাগান্ডা প্রচারে কিছু মানুষ ভুলভাবে সমালোচনা করছেন, মিথ্যা বলছেন। পুরো জিএমও পদ্ধতিটিরই সমালোচনা করছেন এবং মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন। আমি এখানে চেষ্টা করছি কিছু প্রশ্নের উত্তর আমার মত করে দিতে যাতে ব্যাপারগুলো পরিষ্কার হয়। এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়।

সরকার কর্তৃক বিটি বেগুনের অনুমোদন লাভ নিয়ে একেকটি পত্রিকার খবর একেকভাবে এসেছে। দুই ধরনের উদাহরণ একটু দেখে নিতে পারেন নিচের লিংক থেকে:

read more »

October 9, 2013

গণিতের সৌন্দর্য্য – বিভ্রান্তিকর গড়

মূল লেখার লিংক
একধিক রাশির মধ্যে গড় নির্ণয়ের সবচেয়ে সহজ এবং বহুল ব্যবহৃত পদ্ধতিটি হলো মোট রাশির যোগফলকে মোট রাশির সংখ্যা দিয়ে ভাগ দেয়া। যেমন: পাঁচ জন ছাত্র যদি গণিতের একটি পরিক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে যথাক্রমে ৬৮, ৮২, ৭৫, ৯৩ এবং ৭৮ পেয়ে থাকে, তাহলে তাদের গণিতে প্রাপ্ত গড় নম্বর হবে ৭৯.২। ছাত্রদের মোট নম্বর ৩৯৬ কে মোট ছাত্র সংখ্যা ৫ দিয়ে ভাগ করে এই গড় পাওয়া গেলো।

এবার আরেকটি উদাহরনে আসি। মনে করি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দুরত্ব ৩০০ কি.মি.। এক ব্যাক্তি ঢাকা থেকে ঘন্টায় ৩০ কিমি বেগে গাড়ি চালিয়ে চট্টগ্রামে গেলেন এবং ফিরে এলেন ঘন্টায় ৬০ কিমি বেগে। তাহলে তার গড় গতিবেগ কত হবে? এই প্রশ্নের উত্তরে অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রী কোনো কিছু না ভেবেই বলে বসবে ৪৫ কিমি/ঘন্টা। আসলেই কি তাই? এখানে মোট রাশির সংখ্যা ২, এবং রাশিগুলো হচ্ছে ৩০ ও ৬০। তাহলে ৩০ ও ৬০ এর যোগফল ৯০ কে রাশির পরিমান ২ দিয়ে ভাগ করে তো সহজেই বলে দেওয়া যায় গড় হচ্ছে ৪৫!

এবার তাহলে বিস্তারিত দেখা যাক, সত্যিই কি এই দুই গতিবেগের গড় ৪৫ হয় কিনা। আমরা্ এরই মধ্যে বলেছি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব ৩০০ কিমি।

read more »

October 9, 2013

নোবেল পিস সেন্টার

মূল লেখার লিংক
IMG_7763

নরওয়েতে আমার যে রাস্তাটি সবচেয়ে প্রিয় সেই রাস্তাটি শুরু হয়েছে নোবেল পিস সেন্টারের ঠিক সামনে থেকে। এর ডান দিকের রাস্তাটি চলে গেছে ন্যাশনাল থিয়েটারের দিকে আর বাম দিকের রাস্তাটি শেষ হয়েছে মর্ডান আর্ট মিউজিয়ামে গিয়ে।

read more »

October 9, 2013

আটপৌরে ঘোরাঘুরি ২ – রোন গ্লেসিয়ার এবং গ্রিমসেল পাস

মূল লেখার লিংক
আমরা লেক জেনেভার উত্তর তীরে থাকি। জায়গাটা অর্ধচন্দ্রাকৃতি লেকের ঠিক মাঝামাঝি, পশ্চিম প্রান্তে রয়েছে অতি বিখ্যাত জেনেভা শহর, পূর্ব প্রান্তে মন্ট্রু (এটা আমার বাঙালি উচ্চারণ, আমার ফ্রেঞ্চ কলিগের উচ্চারণে, MONTREUX = মনথখ্রো)। দক্ষিণ দিক বাদ দিয়ে আমার বাসার তিনদিকে পঞ্চাশ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের সব এলাকা মোটামুটি ঘুরে ফেলেছি, কখনো গ্রীষ্মে, কখনো শীতে। আজকাল আর তাই সহজে মন ভরে না, ইচ্ছে করে দূরে দূরান্তে যেতে।

লোকেশন বাছাই করতে আমার সবচেয়ে প্রিয় এবং কার্যকর সঙ্গী গুগল ম্যাপস। অসাধারণ এই অ্যাপ্লিকেশনের জন্য গুগলকে আমি সকাল বিকাল ধন্যবাদ জানাই। অফিসের বিরক্তিকর মিটিংগুলোতে সুযোগ পেলেই ম্যাপ খুলে বসে থাকি, আর খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে এদিক সেদিক দেখি।

30-09-2013 12-36-04

read more »

October 9, 2013

অন্যরকম ডাকটিকিট

মূল লেখার লিংক
অন্যরকম ডাকটিকিট ঢাকা: ডাকটিকিটের সঙ্গে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত? চিঠির খামের উপরে ব্যবহৃত হয় ডাকটিকিট। নানা রকম ছবি সংবলিত ডাকটিকিটগুলো আকর্ষণীয়ও বটে। আর সেজন্যই অনেকেই শখের বশে ডাকটিকিট জমান।

read more »

October 8, 2013

রক্তের গ্রুপ ও প্রাসঙ্গিক কিছু তথ্য

রক্তের গ্রুপ ও প্রাসঙ্গিক কিছু তথ্য ঢাকা: মানুষের বেঁচে থাকার অন্যতম প্রধান উপাদান রক্ত। শরীরের মোট ওজনের শতকরা ৭ ভাগ রক্ত, যার ৯২ ভাগই জলীয় পদার্থ।

ঈষৎ ক্ষারীয় রক্ত আপাত দৃষ্টিতে একই রকম মনে হলেও আন্তর্জাতিক রক্ত পরিসঞ্চালন সোসাইটির মতে এগুলো ৩২টি ভিন্ন ভিন্ন ভাগে বিভক্ত। এই ভিন্নতার মূল কারণ, রক্তে নানা রকমের এন্টিজেনের উপস্থিতি।

read more »

October 8, 2013

গণিতের সৌন্দর্য্য: ম্যাজিক স্কয়্যার

মূল লেখার লিংক
ম্যাজিক স্কয়্যারের সাথে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত। ছোট বেলা থেকে সবাই নিশ্চয়ই ম্যাজিক স্কয়্যার দেখে এসেছেন এবং চমৎকারিতায় চমৎকৃত হয়েছেন। যারা এখনো বুঝতে পারেন নি তাদের জন্য বলছি ম্যাজিক স্কয়্যার হলো সমসংখ্যাক কলাম এবং সারি বিশিষ্ট সংখ্যার সজ্জা যেগুলোর সংখ্যাগুলোকে পাশা-পাশি, উপর-নিচ কিংবা কোণাকুনিভাবে যোগ করলে সর্বদা এই উত্তর পাওয়া যায়।

ম্যাজিক স্কয়্যারের ইতিহাস যথেষ্ট প্রাচীন। খ্রীষ্টপূর্ব ৬৫০ সালে চীনে ম্যাজিক স্কয়্যারের প্রচলন ছিল। এরপর ৭ম খ্রীস্টাব্দের আরবীয় কিছু নমুনায় ম্যাজিক স্কয়্যারের খোঁজ পাওয়া যায়। এছাড়াও অনেক প্রাচীন সভ্যতার ধ্বংসাবশেষে ম্যাজিক স্কয়্যার খুঁজে পাওয়া গেছে। প্রাচীন কাল থেকে ম্যাজিক স্কয়্যারের অদ্ভুত প্যাটার্ন দেখে মানুষ অভিভূত হয়েছে। একসময় এটাকে সত্যিই জাদুকরী মনে করা হত। বিভিন্ন রকম প্রাচীন তাবিজ-কবোজে এর ব্যাবহার খুঁজে পাওয়া গেছে। জ্যোতিষ শাস্ত্রেও এর ব্যবহার লক্ষ করা যায়। ষষ্ঠদশ শতকে ইউরোপের জ্যোতিষশাস্ত্রে ম্যাজিক স্কয়ারের উল্লেখযোগ্য ব্যবহার দেখা যায়। সৌরজগতের বিভিন্ন গ্রহকে বিভিন্ন মাত্রার ম্যাজিক স্কয়্যার দিয়ে সংখ্যায়িত করা হয়।

read more »

October 8, 2013

পৃথিবীর সর্ববৃহৎ সাসপেনশন ব্রীজ সমুহ

মূল লেখার লিংক

ব্রীজ মানুষ নির্মিত একটি অত্যান্ত পুরানো স্ট্রাকচার। এটি মুলত ব্যাবহৃত হত রাস্তার মধ্যে কোন প্রতিবন্ধকতা পারহতে। আগে বাশ কাঠ এবং পাথরখন্ড ব্যবহার করা হত ব্রিজ নির্মান করার জন্য। আধুনিক ব্রীজ নির্মান শৈলি যেমন উন্নত হয়েছে তেমনি বড় হয়েছে এর দৈর্ঘ্য। ব্রীজের বিভিন্ন রকমফের আছে যেমন

read more »

October 8, 2013

ফটোব্লগ: সিঙ্গাপুর শটস

মূল লেখার লিংক

কিছুদিন আগে সিঙ্গাপুর গিয়েছিলাম। ঘুরেছি অনেক জায়গাতেই, কিন্তু ছবি খুব বেশি তোলা হয়নি। তার মধ্যে বেছে কিছু দিলাম। প্রথম পর্বে থাকছে সিঙ্গাপুর জু তে তোলা কিছু ছবি।

read more »

October 8, 2013

গণিতের সৌন্দর্য্য: সবচেয়ে বড় সংখ্যাগুলো

মূল লেখার লিংক

আজ কিছু বড় বড় সংখ্যা নিয়ে আলোচনা করব।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সবচেয়ে বড় যে সংখ্যাটি ব্যবহৃত হয় সেটা হল বিলিয়ন। টাকা গণনার জন্য এই সংখ্যাটি ব্যবহৃত হয়। আমাদের দেশের দু-চারজন মানুষ এই সংখ্যাটি ব্যবহার করেন। দেশের সামগ্রিক অর্থনীতির হিসাবের ক্ষেত্রে আরেকটু বড় সংখ্যা ব্যবহৃত হয়, ট্রিলিয়ন। এই ক্ষেত্রটির বাইরে আমাদের গণনা মিলিয়ন পর্যন্তই সীমাবদ্ধ।

read more »

October 8, 2013

এমিরেটস এয়ারলাইন্স সম্পর্কে ১৫টি চমকপ্রদ তথ্য যা হয়তো আপনাকে চমকে দেবে

মূল লেখার লিংক

এমিরেটস এয়ারলাইন্স, দুবাই ভিত্তিক একটি বিমান সংস্থা। এর যাত্রা শুরু হয় ১৯৮৫ সালে মাত্র দুটি পুরনো বোয়িং ৭২৭-২০০ বিমান ও ১০ মিলিয়ন ডলার মূলধন নিয়ে। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে এমিরেটস আজ বিশ্বের অন্যতম প্রধান বিমান সংস্থা।

আসুন এক ঝলকে দেখে নিই এই বিমান সংস্থাটি সম্পর্কে ১৫টি তথ্য যা হয়তো আপনাকে চমকে দিতে পারে-

read more »