যেসব গ্রেটরা ব্যর্থ লর্ডসে

সেঞ্চুরী করা যার কাছে ডালভাত তার নাকি ক্রিকেটের মক্কাতেই কোন সেঞ্চুরী নেই, কেবল সেঞ্চুরী না, হাফ সেঞ্চুরীও নেই। শচীন টেন্ডুলকার সম্পর্কে এমন কথাকে রুপকথার গল্প বলেই চালিয়ে নেয়া যেত। কিন্তু এটা সত্য। লিটল মাষ্টারের লর্ডস ভাগ্য খুবই খারাপ। এ জন্য লর্ডসে তার সর্বোচ্চ স্কোর মাত্র ৩৭!

৯৯টি সেঞ্চুরী নিয়ে লর্ডসের অর্নাস বোর্ডে নাম তুলতে পারলেন না শচীন, এটি যদি আফসোসের কারন হয় তবে অবাক হবার কিছুই নেই।

অনেক বাঘা বাঘা ক্রিকেটার আছেন। রেকর্ড বুকে সব পাতাতে নাম লেখার পরও ক্রিকেট মক্কায় কোন এক রহস্যজনক কারনে লর্ডসের মাঠে তারা ব্যর্থ। সেরকম দশজন ক্রিকেটারকে দেখুনঃ

শচীন টেন্ডুলকার
ক্যারিয়ারের গড় যেখানে ৫৬.৬৮ সেখানে শচীনের লর্ডসে গড় হল ২১.৬৬। ৯৯টি সেঞ্চুরীর একটিও লর্ডসে নেই। এমনকি কোন ৫০ উর্ধ ইনিংসও নেই। সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেছেন লর্ডসে। কত রহস্যই না থাকে পৃথিবীতে। ক্রিকেটেও যথেষ্ট মজুদ আছে।

শেন ওয়ার্ন
গড় হিসাব করলে লর্ডসে শেন ওয়ার্নের গড় বেশ ভাল। ১৯.৫৭ গড়ে ক্রিকেটের মক্কায় ১৯ উইকেট নিয়েছেন ওয়ার্ন। কিন্তু ক্যারিয়ারে ৩৭ বার ৫ উইকেট নেয়া এই লেগ স্পিনার যে একবারও লর্ডসে ৫ উইকেট নিতে পারেননি। লর্ডসে তার সেরা বোলিং ফিগার ৪/৫৭।

মুত্তিয়া মুরালীধরন
১৩৩ টেষ্টে যেখানে ৬৭ বার পাঁচ উইকেট ও ২২ বার ১০ উইকেট নিয়ে যিনি ৮০০ উইকেটের মালিক লর্ডসে তার সেরা বোলিং ফিগার হল ১৫৮/৩। ২০০৬ সালে ইংল্যান্ডের সাথে তিনি ৩ উইকেট নেন।

অনিল কুম্বলে
তিনবারের সফরে লর্ড এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিতে পেরেছেন ভারতীয় লেগ স্পিনার অনিল কুম্বলে। ৬১৯ টি টেষ্ট উইকেটের মালিক লর্ডসে তিন ম্যাচে নিতে পেরেছেন সর্বসাকুল্যে ১২টি উইকেট।

ব্রায়ান লারা
ইংল্যান্ডকে পেলে রসগোল্লা পেতেন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান গ্রেট ব্রায়ান লারা। ক্যারিয়ারে টেষ্ট ব্যাটিং গড় যেখানে ৫২.৮৮ ইংল্যন্ডের বিরুদ্ধে সেখানে ৬২.১৪। ৩৭৫ এবং ৪০০ রানের দুটি বিস্ময়কর ইনিংসই তার প্রমাণ। কিন্তু আশ্চর্য্যজনকভাবে লর্ডসে নিস্প্রভ থাকতেন এই বাঁ-হাতি। লর্ডসে খেলা তিন টেষ্ট মিলিয়ে লারার মোট রান অবিশ্বাস্যভাবে ৫৪! এই তিনটি টেষ্টেই ক্যারিবিয়ানরা হেরেছিল।

রিকি পন্টিং
অস্ট্রেলিয়া দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। সেদিনও তুড়ি বাজিয়েই ডাবল সেঞ্চুরী করলেন। কিন্তু লর্ডসে এখন পর্যন্ত সেঞ্চুরী না কেবল একটি হাফ সেঞ্চুরী করতেও তিনি ব্যর্থ হন। লর্ডসে পন্টিং চারটি টেষ্ট খেলেন। তিনটি ইংল্যন্ডের বিরুদ্ধে একটি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। ৮ ইনিংস খেলে ৪টিতেই তিনি দুই অঙ্কে পৌছতে ব্যর্থ হন। তিনটি ম্যাচ অস্ট্রেলিয়া জিতলেও পন্টিং পুরোপুরি ব্যর্থ। ২০১৩ সালে পন্টিংয়ের সামনে পঞ্চম সুযোগ আসতে পারে।

কার্টলী এমব্রোস
শেন ওয়ার্নের মত ক্যারিবিয়ান পেসার কার্টলী এমব্রোসের লর্ডসের রেকর্ড ভাল কিন্তু লর্ডসে কখনই ৫ উইকেট নিতে পারেননি। পেস বান্ধব পিচে দুই বার চার উইকেট নিয়েছেন এই পেসার।

মাইক আথারটন
১৯৯০ সালে মাত্র ১৫ রানের জন্য লর্ডসে সেঞ্চুরী মিস করেছিলেন ইংলিশ ওপেনার মাইক অথারটন। ১৯৯৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার সাথে একবার ৯৯ রান করে আউট হয়েছিলেন অথারটন। সেটাই অনার্স বোর্ডে নাম লেখানোর শেষ সুযোগ ছিল আথারটনের কাছে।

জ্যাক ক্যালিস
বর্তমান ক্রিকেটের একেবারে সঠিক অলরাউন্ডার মানা হয় দক্ষিন আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিসকে। তিনিও লর্ডসে ব্যার্থ। দুই ইনিংস মিলে পাঁচ উইকেট নিলেও অনার্স বোর্ডে নাম তুলতে পারেননি। বর্তমান ফর্ম বিবেচনায় পন্টিংয়ের মত ক্যালিসের হাতে সুযোগ আছে অনার্স বোর্ডে নাম লেখানোর।

সুনীল গাভাস্কার
ভারতের গ্রেট ব্যাটসম্যান ওপেনার সুনীল গাভাস্কার লর্ডসে পাঁচ টেষ্ট মিলিয়ে সর্বসাকুল্যে রান করেন ৫৯। ১৯৭১ থেকে ১৯৮৬ সাল পর্যন্ত পাঁচটি টেষ্ট খেললেও লর্ডসে বড় স্কোর করতে ব্যর্থ হন সুনীল।

.

.

.

http://bdsportsnews.com/index.php?option=com_content&view=article&id=2436:2012-02-14-02-49-34&catid=47:top-news&Itemid=60

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: