রেস্টুরেন্টে খাইতে গিয়া দুই ঘন্টা পার হওনের পরেও খাওন টেবিলে আসে না?? এইবার ১০০%নিশ্চিত আইবো

কেমনে বেশি খাওয়া যাইব বা খাইয়া গাটের পয়সা উসুল করা যাইব তা নিয়া এতদিন বহুত গেজাইছি…..আজকা গেজামু সম্পুর্ন আলাদা একটা বিষয় নিয়া যেইটা আপনাদের বাইরের অ্যাভারেজ মানের হোটেলে খাইতে গেলে বহুত কামে লাগব বইলা মনে করতাছি……মনে করেন একটা হোটেলে খাইতে গেসেন পেটে যব্বর ভুখ কিন্তু হোটেলে খাদ্যমেলা চলতেছে(ভীড়), কোনো টেবিল খালি নাই আধা ঘন্টা ধইরা খারাইয়া আছেন। কোনো মতে একটা টেবিল যোগাড় কইরা ব্যাক প্রপার্টি চেয়ারে ল্যান্ড করাইছেন। মেসিয়ার আইসা আপনার ডাইনের টেবিলে কাবাব পরোটা দিয়া গেলো তখন আপনে ডাক দিলেন “এই যে মামা“, শালা তাকাইলো না। আবার আরেক মেসিয়ার হালিম আর নান রুটি নিয়া বাম পাশের টেবিলে দিয়া গেলো তখনও ডাক দিলেন “অই মামা একটু শুনো”, এই শালায় ও আপনার মতো আখাউরা ভাগিনারে বিশেষ পাত্তা না দিয়া জিগাইলো কি খাইবেন……..আপনি কইলেন “দুই পেলেট কাচ্চি”

সে করলো আধা ঘন্টা লেট
উইথ কাচ্চি দুই পেলেট
{(একটু কাব্য করার চেস্টা)+(ক্ষুধার রাজ্যে কিন্তু পৃথিবী গদ্যময় কিন্তু ক্ষিদা যখন লাগে তখন পেটের ভিতরে যে সুন্দর ছন্দময় শব্দ সৃস্টি হয় তাতে কিন্তু সুকান্ত ভালই জব্দ হয়)}
কিন্তু সেটাও আপনার জইন্যে না কারন এত চান কপাল নিয়া আপনে এত চান কপাল নিয়া জন্মান নাই বুজলেন।
যাই হোক কাচ্চি নিয়া আপনের পিছের টেবিলে দিয়া আপনের টেবিলে আইসা খুব আপন একটা হাসি দিয়া যদি কয় “ভাগিনা কাচ্চি তো শেষ, অন্য কিছু খান” আপনি জিগাইলেন কি আছে? মামায় কইলো কাবাব,হালিম,গরুর গোস, মুরগীর মাংস ছাড়া আর সবই আছে(আমি জানি আপনের পেটের আগুন মাথায় ধইরা গেছে) কিন্তু উপায় কি, শ্যাস তো শ্যাস কিছুই করার নাই…..যাই হোক তো শেষ ম্যাস নানরুটি দিয়া রুই মাছের ঝোল দিয়া পেটের আগুন নিভাইলেন…বুকে হাত দিয়া কন তো এরকম আপনার জীবনে প্রায়ই ঘটেনা যে রেষ্টুরেন্টে খাইতে গেছেন যব্বর ভুখ লাগছে মেসিয়ার রে মামা ডাকতে ডাকতে অর লগে আপনার ব্লাড গ্রুপ ম্যাচ খাইয়া গেসে তাও সালায় থুতনি উচাইয়া ফিরা চায় না…আগে যদি আপনার ডাকটা শুনতো তাইলে হয়ত শেষ কাবাব টা আপনার প্লেটেই পরতো অথবা খিদার চোটে ডাইন বাম চিনতাছেন না এমন অবস্থায় আপনেরে দুই ঘন্টা ধ্যানে বসাইয়া রাইখা শালায় আরেক জনের পেটের পুজা দিতাছে, এমন কি হয় না যে খাওয়ার মাঝখানে পরোটা শেষ কিন্তু কাবাব শেষ হয় নাই, মামারে কইলেন পরোটা দিও কিন্তু আপনের পেয়ারে মামা পরোটা আন্তে যে সময় লাগাইছে এর ভিতরে কাবাব খুইটা খুইটা খাওয়া শেষ কইরা ফেলাইসেন….কি ভাই দৈনন্দিন জীবনের সাথে মিল্যা যাইতেছে না??

আমার কিন্তু এই সমস্যা খুব বেশি হয় না……….৯৫% ক্ষেত্রে আমি মেসিয়ার মামাদের খুব কাছের হইয়া যাই প্রথম মোলাকাতে….মামারা আমারে মনে রাখে অনেকদিন…..এক দেড় সপ্তাহ পরে গেলেও আমারে খাতির করে সেইরকম…..কিন্তু কেনো, আমিও তো আপনাগো মতন রক্তে মাংসে গড়া হোমোস্যাপিয়েন্স। না ভাই কসম কইরা কইতাছি আমি তাবিজ কবজ করি না খালি স্থান কাল পাত্র ভেদে কিছু টিরিক্স অ্যাপ্লাই করি। এখহন কথা হইলো টিরিক্স গুলি কি……..টিরিক্স গুলি পয়েন্ট আকারে আলোচনা করা হইলো

১) হোটেলে ঢুস মারার পরে যদি সিট খালি না পান তাইলে পুর হোটেলে যেখানে সেখানে চক্কর না মাইরা হোটেল টায় তিনটা চক্কর দেন, খুইজ্যা দেখেন কোন হিউম্যান বিং হাড্ডি বা মাছের কাটা চাবাইতাছে হের টেবিলের সামনে লাইন লাগান, ৫-৭ মিনিটের ভিতরে হের খাওয়া শ্যাস হইব নিশ্চিত। ৫-৬ জন মানুস একসাথে থাকলে একসাথে জটলা না পাকাইয়া ছড়াইয়া ছিটাইয়া উপরের ম্যাথড ফলো করেন সেক্ষেত্রে আরো দ্রুত টেবিল দখল করতে পারবেন।

২)টেবিলে বসার পর পছন্দ মতন একটা মামারে টারগেট করেন তারপর তার নাম টা জাইন্যা রাখেন, মনে রাখবেন এইমামা এইমামা না ডাইক্যা নাম ধইর‌্যা এই ইয়াকুব মামা অথবা এই বশির মামা ডাকলে মেসিয়ারের ইন্দ্রিয়তে দ্রুত টাচ করবে।

৩)মামারে অবশ্যই আপনি আপনি কইর‌্যা অর্ডার দিবেন এবং ভদ্র ব্যবহার করবেন, যা খাইবেন সেইটা আগেই ফিক্সড কইরা রাখবেন(২ নং এর আগে)। যাতে মামা একবারে নিয়া আসতে পারে, এবং খাওয়ার মাঝখানে যেন আঙ্গুল চুষতে না হয়{(খারাপ ব্যবহার করলে কিন্ত অনেক মামায় খাওনের মইধ্যে একদলা ছেপ মাইরা খাওয়ার টেস্ট বাড়ায় দিতে পারে সো খাদক সাবধান)+(অনেক মামার কিন্তু আজাগায় কুজাগায় চুলকানির হবি আছে তাই খারাপ ব্যবহার করার আগে আরেকবার চিন্তা প্রার্থনীয়)}

৪) এবার সালাদ টিরিক্স শিখামু। অনেকের কাছে এইডা অনেক গুরুর্ত্বপুর্ন একটা বিষয়। মামারে ষখন সালাদ দিতে কইবেন তখন আলগা একটা ফাপড় মাইর‌্যা দিবেন এই বইল্যা যে মামা গতপরসুর সালাদটা কিন্তু জঘন্য হইছিলো আজকার টা যেন অইরকম না হয়, মামায় মনে করব আপনে হের রেগুলার কাস্টমার দেখবেন যেই সালাদ বানায়া দিব অইটা দিয়াই ভাত নইলে রুটি খাইতে পারবেন আলাদা কইরা তরকারি, কাবাব নিতে হইব না(১০০% পরীক্ষিত, এমনকি জীবনে প্রথম একটা রেষ্টুরেন্টে গেসেন সেখানেও এই টিরিক্স ফেইল মারবো না)

৫)খাওয়া দাওয়া শেষ তাই বইল্যা কি মামার লগে পোল্টি মারবেন? জি না ভাইজান, এই কাজ কইরেন না……বিলটা দেওয়ার পরে যে ভাংতি আসবো তার থেকা নিম্নে বিশ আর উপ্রে ৫০-১০০ টাকা টিপস দিতে হইব(জিনিসটা বিল এবং কত জন মানুষরে মামা সার্ভিস দিসে তার উপরে ডিপেন্ড করে)

৬) এবার সবচেয়ে ইম্পরটেন্ট টিপসটা দিমু যেটার লাইগা মামায় আপনেরে ফর ইয়ারস মনে রাখব….মানুষ সেই জিনিসটাই মনে রাখে যেটা সচরআচর তার সাথে খুব কম ঘটে..সবকিছউর পাট চুকাইয়া যখন আপনি বাইর হইয়া যাইবেন তখন মামার সাথে হাত টা মিলাইয়া কুলাকুলি কইরা বলবেন যে মামা আজকে আসি, আবার আমু, ভালো থাইকেন, আজকে বেশি টাকা ছিলো না তাই বেশি টিপস দিতে পারলাম না….দেখবেন মামায় কিরকম খুশি হয়….এই কাজটা আমি রেগুলার করি অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথেই…….যদি দেখেন আপনের এই অ্যাটিচুড বেশি কাজে দিতাছে না বরং মামারা বিরক্ত হয় তাইলে বুঝবেন যে এই পোস্ট হিট আর আপনি এই পোস্ট পড়তে বেশি দেরি কইরা ফালাইসেন, সবাই এই কাজ করতাছে গনহারে তাই মামারাও আর বিশেষ পাত্তা দেয়না। কি!! চিন্তা করতাছেন সবাইরে সবকিছু জানায় দিছি তাইলে আমি এখন পুরান টিরিক্স দিয়া মামাগো সেটিং দিমু কেমনে?? আরে ভাই আমি গবেষক মানুষ, নতুন কিছু না বাইর কইরাই এইসব জিনিষ আপনাগোর কাছে মেইলা ধরছি…

উপরিউক্ত রুলসগুলি ফলো করেন দেখবেন ইন্সট্যান্ট ভাগিনার মতন আদর পাইবেন আর পরবর্তিতে যদি সেই রেস্টুরেন্টে আবার যাওয়া পরে তাইলে জামাই আদর নিশ্চিত………….হ্যাভ এ হ্যাপী ফুড জার্নি

http://www.somewhereinblog.net/blog/blackcircle123/29454504

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: