আসুন, মুভি DVD রাইট/ DVD ডিস্ক বানাই। রাইফেলস স্কয়ারের ঐ কেনা DVD গুলোর মত!

ডাউনলোড করা মুভিগুলোকে, রাইফেলস এর কেনা DVD গুলোর মত করার চেষ্টা ছিল অনেক দিনের। কত শত পরীক্ষাই না ছিল এ ব্যাপারে।তবে অনেক গবেষণার পর যেটা মনে হয়েছে সবচেয়ে সহজ ও লাভজনক,তাই ই শেয়ার করলাম।


এটা করার জন্য অবশ্যই সফটওয়্যার লাগবে তা বলার ঊর্ধ্বে।তবে বেশীর ভাগ সফটই কিনতে হয়।এই কিনা সফটে ক্র্যাক ফ্যাক করা একটা ঝামেলা।তাই ওপেন সোর্স টাইপ সফটই ভালো।এই ওপেন সোর্স সফটের মধ্যে যেটা সবচেয়ে ভালো সেটা হচ্ছে DVD Flick. এই DVD Flick এর সাহায্যে করা মুভি DVD গুলোকে আপনি যেকোনো DVD প্লেয়ারই দেখতে পাবেন।এমন কি আপনার ড্রয়িংরুমে বসে বসেই।

এই ভাবে আপনি যে DVD করবেন এটাকে বলে অথোরিং। এটা আপনার নিরো এর মত না।নিরোতে বার্ণ করা DVD আপনি DVD প্লেয়ারে দেখতে পারবেন না।এটার জন্য আপনাকে authored DVDসফট এর সাহায্য নিতে হবে।আর এ রকমই আপনাকে authored DVDসফট হচ্ছে DVD Flick।

এখন একে একে সব গুলো ধাপ বর্ণনা করব যার সাহায্যে আপনি রাইফেলস এর ঐ DVD গুলোর মত করে DVD বানাতে পারবেন।

প্রথম ধাপ

প্রথমেই আপনি DVD Flick সফটটি ডাউনলোড করে নিন। আর এরপর ইন্সটল।
এরপর আপনার যা করতে হবে তা হলও আপনার ডাউনলোড করা ভিডিও ফাইলটা কোন ফরমেটে আছে তা দেখতে হবে।বেশীরভাগ ফাইলই হয় AVI,MKV,3gp ইত্যাদি ফরমেটে। এই ফরমেট গুলো দিয়ে আপনি DVD তৈরি করতে পারবেন না।তাহলে কি করতে হবে? যেটা করতে হবে সেটা হলও আপনার ডাউনলোডকৃত ফাইলটাকে MPEG-2 ফরমেটে এনকোড করতে হবে। আমার দেখা কনভার্টর গুলোর মধ্যে iwisoft বেশ ভালো। এটাকে ডাউনলোড করে,ইন্সটল করে আপনার ফাইল কনভার্ট করে নিতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপ

সফট ইনস্টলের পর আপনি দেখবেন উইন্ডো ওপেন হবে।এখানে বাম পাশে এড টাইটেল এ ক্লিক করে আপনার পছন্দের এনকোডেড মুভিটা
এড করবেন।এরপর এডিট টাইটেল এ ক্লিক করে বাকি পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

Thumbnail time index আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী চেঞ্জ করতে পারেন।

Chapters এ আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী chapter দিতে পারেন। তবে কোন কিছুই আপনি ফ্রাকশনে দিবেন না কাইন্ডলি।

এরপর আসে video sources
এখানে আপনি অন্যকোন ভিডিও ফাইল এড করতে পারেন।যেমন এনিমেশন টাইপে।তবে আপনার ফরমেট যেন একই হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।pixel aspect default ই থাকবে।

Audio tracks এ চাইলে এক্সট্রা audio যোগ করতে পারেন।

এরপর আসে
subtitle এখানে সাবটাইটেল এড করে আপনার পছন্দ অনুযায়ী চেঞ্জ করে নিতে পারেন।সাবটাইটেল আপনি ডাউনলোড করে এড করবেন।

তৃতীয় ধাপ

এখন যেটা করতে হবে আপনাকে তা হলও আপনি DVD Flick এর সেটিংস্ কনফিগার করে নিতে হবে। ইন্সটলের পর আপনি দেখতে পাবেন একদম উপরে project seating।এখানে ক্লিক করবেন। প্রথমেই পাবেন General Tab
। টাইটেলে আপনার নাম দিতে পারেন, এই রকম Pushkin’s DVD। এরপর আসে টার্গেট আসপেক্ট রেশিও ।আপনার কেনা DVD এর সাইজ অনুযায়ী আপনি তা সেট করতে পারেন।

Encoder আপনি নরমাল দিন। এটা শেষ হলে ok করে বেরিয়ে আসুন।
এর পর video tab এ ক্লিক করবেন। এখানে টার্গেট ফরমেট এ আপনি আপনার পছন্দের মত ফরমেট দিতে পারেন।তবে বেশীর ভাগ ফরমেট NTSC তে হয়।এনকোডিং নরমাল রাখুন।
টার্গেট বিট-রেট অটো ফিট।এরপর এখানের এডভান্স অপশনে গিয়ে আপনার পছন্দ মত চেঞ্জ আপনি করতে পারেন।

এরপর ক্রমান্বয়ে আসে অডিও,প্লেব্যাক ট্যাব
।এগুলো যেমন আছে তেমনই রাখবেন।
বার্নিং এ এসে আপনি ISO ইমেজ তৈরি করতে পারেন যদি ইচ্ছে করেন।ok দিয়ে এর পর বেড়িয়ে আসুন

চতুর্থ ধাপ
আপনার এড করা ফাইলের জন্য এখন হবে মেনু সেট করা। এর জন্য উপরে আপনার মেনু সেটিংস এ ক্লিক করতে হবে।এর পর আপনার পছন্দ অনুযায়ী মেনু পছন্দ করে তা ok করতে পারেন।


পঞ্চম ধাপ


এর পর create DVD তে ক্লি করে DVD তৈরী শুরু করবেন।

মনে রাখবেন :
১.আপনি মুভি এডড করে বাণের সময় যেন বিট রেট 3000 kbit/s

হয় অথবা তার বেশী হয়।
২.ফরমেট যেন ভিডিওর একই থাকে।

http://www.somewhereinblog.net/blog/pushkin/29494425

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: