শরাফতের ধারাভাষ্য সমগ্র

*মেঘমুক্ত মাঠ, কর্দমাক্ত আকাশ, পিচের উপর দিয়ে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি বয়ে যেতে পারে।
– জাভেদ ওমর বেলিম গুল্লু, যার কথা না বললেই নয়, যার অভিধানে আউট শব্দটি অনুপুস্থিত। বলতে বলতেই জাভেদ ওমর বেলিম গুল্লু বোল্ড আউট হয়ে আস্তে আস্তে মাথা নিচু করে প্যাভিলিয়নের দিকে যাচ্ছেন। তার সংগ্রহ ৬৭ বলে ৭ রান।
– মিনহাজুল আবেদিন নান্নু , যার কথা না বললেই নয়, যার প্রতিটি পশমে পশমে অভিজ্ঞতার ছাপ। নান্নু কিন্তু প্রথম থেকে মালয়েশিয়ার কিলাত-ক্লাব মাঠে রানের বণ্যা বয়ে দিচ্ছেন।
-বোলিং মার্কে আসছেন মোহাম্মদ রফিক, যার বোলিং স্টাইল হচ্ছে অনেকটা শরতের ধান ক্ষেতের উপর দিয়ে উষ্ণ হাওয়া বয়ে গেলে ধানগুলো যেমন নুয়ে যায়, তেমনি মাজাকে দুলিয়ে দিয়ে বল করেন মোহাম্মদ রফিক।
*বোলার আকরাম খান তার ট্রাউজার খুলে আম্পায়ারের হাতে দিলেন।
*এই মাত্র তামীম ইকবাল প্রথম হাফ সেঞ্চুরি করার যোগ্যতা অর্জন করলেন।
*মাঠ চলে গেল বলের বাইরে, দুঃখিত দর্শকমন্ডলি, আমি একটু আবেগে আপ্লুত হয়ে গিয়েছিলাম, বল চলে গেল সীমানার বাইরে।
*বাংলাদেশের আশার ফুল আশরাফুল কিন্তু এখন ক্রিজে, সারা দেশের মানুষ তার ব্যাটের দিকে তাকিয়ে আছে।
*বল হাতে নিয়ে ছুটে আসছেন জয়ের মূল এনামুল, বল হাতে তার মতো ভয়ানক বোলার কিন্তু আমি খুব কমই দেখেছি, আজ কিন্তু যে কোনো কিছু ঘটে যেতে পারে।
*ব্যাটসম্যান সজোরে ব্যাট চালালেন, ছক্কা হওয়ার সম্ভাবনা, কিন্তু না, বোল্ড।
*মোহাম্মদ আশরাফুল সুন্দর একটি শট এবং আউট।
*স্কয়ার কাট করে বল পাঠিয়ে দিলেন লং অন দিয়ে সোজা সীমানার বাইরে।
*দৃষ্টিনন্দন মার, চোখ চেয়ে দেখার মতো শট, বল চলে গেল মাটি কামড়ে সোজা ফাইন লেগ ফিল্ডারের হাতে – একটি রান।
*এন’কালা – তিনি নামেও কালা, দেখতেও কালা।
*রফিক ষ্টীয়ার করলেন এবং ভেসে ভেসে চার।
*বোলারের ব্যাক ড্রাইভ, কভার অঞ্চল দিয়ে বল সীমানার বাইরে।
*চমৎকার শট, এক্সেলেন্ট লেগ গ্লান্স, বল সীমানার বাইরে, না! তিনি বোল্ড হয়ে ফিরে আসলেন, বল লেগ স্ট্যাম্পে লেগে সীমানার বাইরে চলে গিয়েছিল।
*আজ আমাদের সাথে উপস্থিত আছেন, দেশ বরেণ্য ক্রিকেটার, এক সময়ের সারা জাগানো প্লেয়ার, জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, বর্তমানের নির্বাচক বোর্ডের সদস্য, জনাব ফারুক।
*এবার কিন্তু ব্যাট আর বলে হয়েছে।
*ব্যাটসম্যান অত্যন্ত আস্থার সাথে প্রতিটি বলের মেধা ও গুনাগুন বিচার করে খেলছেন।
*আম্পায়ার কে অতিক্রম করে বোলার বল করলেন।
*আলফাজ চমতকার ভাবে ২ জন কে কাটিয়ে সুন্দর ভাবে বারে কিক নিলেন, কিন্তু না, ভুলপাস।
*এবার কিন্তু ব্যাটসম্যান সজোরে স্টীয়ার করলেন।
*সুপ্রিয় দর্শকমন্ডলী, এই মাত্র আমাদের বাংলাদেশের দামাল সন্তানেরা এই মাত্র এক ইনিংস ও ১২৯ রানে পরাজিত হওয়ার গৌরব অর্জন করলেন।
*উইকেটে আছেন আমাদের মারমুখী হার্ডহিটিং ব্যাটসম্যান জাভেদ ওমর। প্রচুর শট আছে তার হাতে।
*ব্যাটসম্যান কিন্তু ঘূর্ণি যাদু তে একেবারেই পরাস্ত হলেন।
*ব্যাটসম্যান দেখে শুনে না খেলে ছেড়ে দিলেন এবং বোল্ড।
*বলার কর্তৃক ফিল্ডিং হয়ে গেল; কোনো রান পেলেন না।
*ধন্যবাদ শামীম। আবারো একটি সহজ চারের মার এবং সেই সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অধিনায়ক লারা ব্যাট উচিয়ে জানান দিলো তার শতকের কথা।
***আমাদের আজকের অতিথী এক উজ্জ্বল নক্ষত্র, জীবন্ত কিংবদন্তী, বাংলাদেশেরে ক্রিকেটের এক অবিস্মরনীয় জাজ্জল্যমান তারকা, সবার জন্যে অনুকরনীয় উদাহরণ, যার নাম শুনলে বোলাররা কাঁপতো, যার পদচারনায় এই ক্রিকেট বিশ্ব উদ্ভাসিত হত, যিনি না থাকলে আজকের ক্রিকেট স্ব্য়ংসম্পূ্র্ণ হতো না, যার অবদান বাংলাদেশের ক্রিকেটকে নিয়ে গেছে এক অসাধারন উচ্চতায়, যার আত্বত্যাগ আমাদের কাছে চিরস্বরণীয় হয়ে থাকবে, যিনি আজকের ক্রিকেটারদের কাছে এক অভিভাবক, তিনি সেই জীবন্ত কিংবদন্তী, তিনি সেই দমকা হাওয়া বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য, তিনি সেই সেলিম শাহেদ, আজ আমাদের মাঝে উপস্থিত।

Advertisements

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: