‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ বিষয়ক আবঝাব

(দরকার নাই, তাও বলি: সকল চিন্তা আমার, এবং অসাড় চিন্তাও। )

‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ যেন এডরেনালিনে চলা জীবন। ডেভিড ফিঞ্চারের এই প্রবনতাটা আগে ছিল না তা না। কিন্তু জাকারবার্গ বাস্তব জীবনের মানুষ কিনা, চোখে পড়ে।

সিনেমাটি দেখে মুগ্ধ হতে সময় লাগে না। ফিঞ্চারের সাথে যুক্ত হয়েছেন ওয়েস্ট উইং-এর অ্যারন সরকিন।

ফ্ল্যাশের পর ফ্ল্যাশের পর ফ্ল্যাশ, তা সে হেনলি রয়েল রেগাটায় আরনি হ্যামারই হোক (ডিজিটালি ডাবল করা উইংকলভস ভ্রাতৃদ্বয়), বা টিম্বারলেকের শন পার্কারই! ‘শনাথনের’ পর বের হওয়ার মুহুর্তে, থার্ড পারসন ন্যারেশনে এদুয়ার্দো সাভেরিনের মুখ থেকে আমরা শুনি কিভাবে দ্যফেসবুক ‘ফেসবুক’ হল পার্কারের এক ধাক্কায়।

এসব মুহুর্তের রাজা ফিঞ্চার। কেন জানি মনে পড়ে যায় সেভেন আর ফাইট ক্লাবের কথা, যদিও জোডিয়াক আপাতত বাদ যায়।

মার্ক জাকারবার্গের ফেসবুক প্রোফাইলে কিছু জিনিস চোখে পড়ে… চোখে লাগেও।

‘মিনিমালিজম’।

‘মিনিমাইজিং ডিজায়ার’।

জাকারবার্গ আসলে কি চায়? এই জাকারবার্গই কি সেই জাকারবার্গ যার একসেট কার্ডে কিনা বহুদিন লেখা ছিল ‘আই অ্যাম সিইও, বিচ!’?

আবার এই জাকারবার্গই চামে মিলিওনিয়ার হওয়া হাত থেকে ফেলে দেয়। ক্রেতাকে বলে, তুমি তো আমার অ্যাপার্টমেন্ট দেখসো। আমার টাকার দরকার নাই!

আমিও জানি, আপনিও জানেন যে সিনেমার জাকারবার্গ আর আসল জাকারবার্গে পার্থক্য আছে। তবে কথা সেটা নয়, কথা হল – সিনেমার ক্যারিকেচারটা কতটা মিথ্যা?

খুব বেশি কি মিথ্যা?

নাহলে জাকারবার্গ কেন নিউআর্ক স্কুল ডিস্ট্রিক্টকে দশ কোটি ডলার দেয় সিনেমা রিলিজ হওয়ার দিন? তারপর দু’সপ্তাহ পরে জনগনকে নিয়ে সিনেমাটা দেখতেও দেখি যায়!

কেন, সিনেমাটা সমাদৃত হয়েছে দেখে?

জাকারবার্গ যদি খালি ওই ফেসবুক ওয়ালে লেখা মিনিমাইজিং ডিজায়ার জাকারবার্গই হতো, তাহলে ‘এ মার্ক জাকারবার্গ প্রোডাকশন’, ফেসবুক আমরা পেতাম কী করে?

সিনেমা বলে, এরিকা অলব্রাইটের উপর প্রতিশোধ নিতে জাকু মিয়া এই কাজ করে বসেছে। হুঁম। মাঝখানে কয়দিন বাদে সেই ২০০৩ থেকে প্রিসিলা চ্যান নামকে চৈনিক-আমেরিকান নার্সের সাথে জাকারবার্গের স্টেডি সম্পর্ক বেমালুম ভুলেই গেলেন ফিঞ্চার?

ভাল সিনেমা ভাল জীবন না।

‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ আমাদের মানসচিত্রে এ্যাংরি নার্ডের স্টেরিওটাইপকে আনন্দ দেয়? আসল জাকারবার্গকে নিয়ে বানালে সেটা মুভি হতো না, ডকুমেন্টারি হতো? আমরা ঘুমিয়ে যেতাম?

কেউ বলে, আরে, জাকারবার্গ কি এমন করসে? আজিরা, ফেসবুক কি এমন জিনিস?

কেউ বলেন, না ঠিকাসে, পোলাটা সেরকম একটা কাজ করসে। হ্যাঁ, হয়তো চার পাঁচ বছর পর ফেসবুক হটমেইলের মত হয়ে যাবে, তো কি?

সেভাবে দেখলে জাকারবার্গ সঠিক জায়গায় সঠিক সময়ে ছিল। ভাগ্যও ছিল। সোশ্যাল নেটওয়ার্কসমুহ নিয়ে গবেষণায় দেখা গেছে একটা টিপিং পয়েন্টের পর ক্যাচ-আপ গেম আর খেলা সম্ভব না।

কি জানি, ছেলেটা বাচ্চা দেখে আমাদের এত আগ্রহ? মাত্র চব্বিশে চার বিলিয়ন দেখে?

জাকারবার্গকে সামাজিকভাবে অচল ধরণের কতকিছু বলা হইসে। সবাইকে সোশ্যাল সোয়ান হতে হবে কেন? আমি নিজে সামাজিকভাবে জাকারবার্গের থেকে খুব একটা সচল বলতে পারি না।

আমি ভাবি, এই বয়সে ছেলেটারে কি পরিমান চাপ নিতে হইতেসে দেখেন। তারে নিয়ে খুব প্রশংসামূলক কোন সিনেমা কিন্তু এটা না। আমাকে নিয়ে এমন মুভি বানাইলে আমার কেমন লাগতো? (এখন মনে হচ্ছে মজাই লাগতো, ব্যাপক চাম নিতাম, কিন্তু সিনেমাটায় তো মোটামুটি কড়া কিছু এ্যাঙ্গেলও আছে!)

নাকি ফিঞ্চারের অবলম্বন জাকারবার্গের সৃষ্টির সাফল্য?

অনলাইন জগৎটা নতুন একটা পরীক্ষণক্ষেত্র। আজ হোক কাল হোক, ফেসবুক না হলে ওর্কুট না হলে মাইস্পেস আসতোই। প্রশ্নটা বরং – মানুষের সামাজিক হায়ারার্কি এবং মূল্যকে কিভাবে ‘অর্থ’-বহ করা যায়?

প্রাইভেসি বলে এখনো কিছু নেই অবশ্যই তা না। খুব সস্তায় ন্যানোক্যামেরা উৎপাদনের পর হয়তো প্রাইভেসি বলে কিছু থাকবে না।

কিন্তু প্রাইভেসি স্বেচ্ছায় বিলানোর সব প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক ইত্যাদি সাইট প্রস্তুত করে দিসে। তুমি তোমার গেটেড কমিউনিটি বানাও। কারে ঢুকতে দিবা সেটা তুমি ঠিক করো। “ও আমারে এ্যাড করে না ক্যান?”, “আচ্ছা তুই কি অরে ডিফ্রেন্ড করসিলি?”, “আরে, সেলিব্রিটি/খেলোয়াড়/নায়ক এক্স/ওয়াই/জেড ওর ফ্রেন্ড!

অন্তর্মুখী কোমল সম্ভারের কারণে এখন বরং বেশি সফল বহির্মুখীর তুলনায় বন্ধুত্ব বজায় রাখতে। আরেকটা ‘লেভেলিং’, যদিও বলছি না বহির্মুখীরা সব হারিয়ে বসে আছে।

কি জানি, একটা জিনিস যখন জনমধ্যে ছড়িয়ে পড়ে সেটার উপযোগ ক্রমাগত হ্রাস পেতে থাকে। এদিক দিয়ে ফেসনবক সে পর্যায়ে পৌঁছতে যাচ্ছে। একটা পর্যায়ে ফেসবুক ব্যবহারের সাথে কুলনেসের কোনই সম্পর্ক থাকবে না।

তখন নতুন কি আসবে?

http://www.sachalayatan.com/sirat/36218

Advertisements

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: