ক্রিকেট-অদ্ভূত কিছু শট

আমরা যারা ক্রিকেট দেখি তাদের কেই না চার বা ছয় দেখতে পছন্দ করি। যুগ যুগ ধরে ক্রিকেটে এসেছে নানা পরিবর্তন। আর সেই সাথে বদলেছে খেলোয়ারদের মানসিকতা, খেলার ধরন, অভ্যাস, শট………প্রভৃতি। টুয়েন্টি-টুয়েন্টি আর ওয়ানডে ক্রিকেটের এই যুগে আধুনিক ক্রিকেটারদের মূল লক্ষ্য কম বল খেলে যতোটা সম্ভব বেশি রান করা। আর সেই প্রয়াস থেকেই জন্ম হয়েছে অদ্ভূত সব ক্রিকেট স্ট্রোকের…….

রিভার্স সুইপ (Reverse Sweep):

রিভার্স সুইপ হচ্ছে একধরনের সুইপ শট, তবে উল্টো দিকে। আমরা সচরাচর যে সুইপ শট দেখি সেটা হচ্ছে ব্যাকফুটের হাঁটুর উপর ভর দিয়ে, ব্যাকফুট মুড়িয়ে, পিচের উপর ঝুঁকে ফ্রন্টফুট সামনে দিয়ে পিচের সাথে সমান্তরালভাবে এমনভাবে ব্যাট চালানো যাতে বল শট খেলার পর বল ফাইন লেগ ও লং লেগ এলাকার দিকে যায়।

Nafis_Iftekhar_1224042893_1-80823.jpg
ছবি: প্রথাগত/অর্থোডক্স সুইপ শট-ইউনুস খান (ডানহাতি)

Nafis_Iftekhar_1224043705_3-_42387558_hussey416.jpg
ছবি: প্রথাগত/অর্থোডক্স সুইপ শট-মাইকেল হাসি (বামহাতি)

কিন্তু রিভার্স সুইপের ক্ষেত্রে বোলার বল ডেলিভারি করার সামান্য পূর্বে ব্যাটসম্যান মুহূর্তেই সম্পূর্ণভাবে ঘুরে গিয়ে ও ব্যাটের গ্রিপ পরিবর্তন করে প্রায় (প্রায় বলার কারন আছে) উল্টো স্ট্যান্স গ্রহন করেন এবং এমনভাবে সুইপ শটটি খেলেন যাতে বল কাভার ও থার্ডম্যানের মাঝে কোন এলাকায় যায়। ব্যাপারটা অনেকটা এভাবে কল্পনা করা যেতে পারে- ডানহাতি ব্যাটসম্যানের রিভার্স সুইপ বামহাতি ব্যাটসম্যানের সাধারণ/অর্থোডক্স সুইপ। আবার তেমনিভাবে বামহাতি ব্যাটসম্যানের রিভার্স সুইপ ডানহাতি ব্যাটসম্যানের সাধারণ/অর্থোডক্স সুইপ।

Nafis_Iftekhar_1224044115_5-91528.jpg
ছবি: রিভার্স সুইপ-ইউনুস খান (প্রকৃতপক্ষে ডানহাতি)

Nafis_Iftekhar_1224044067_4-sachin_reverse_sweep.jpg
ছবি: রিভার্স সুইপ-শচীন টেন্ডুলকার (প্রকৃতপক্ষে ডানহাতি)

Nafis_Iftekhar_1224048605_5-cricpic.jpg
ছবি: রিভার্স সুইপ-এ্যান্ডি ফ্লাওয়ার (প্রকৃতপক্ষে বামহাতি)

ব্যাপক আলোচিত এই শটটির জন্ম ৭০’ এর দশকে পাকিস্তানের মুশতাক মোহাম্মদের হাত ধরে। তবে মুশতাক মোহাম্মদের ভাই হানিফ মোহাম্মদকেও কখনো কখনো এই শটের জনক বলে অভিহিত করা হয়ে থাকে। অসাধারণ রিভার্স সুইপ খেলে থাকেন এমন খেলোয়ারদের মধ্যে এ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, ডেমিয়েন মার্টিন, জন্টি রোডস, জাভেদ মিঁয়াদাদ, শচীন টেন্ডুলকার অন্যতম।

কেভিন পিটারনসনের রিভার্স সুইপ/সুইচ হিটিং বিতর্ক:

রিভার্স সুইপ অনেকেই খেলেন কিন্তু কেভিন পিটারসনের রিভার্স সুইপ খেলার ধরন আর সবার থেকে আলাদা। একটু আগে রিভার্স সুইপের সংজ্ঞা দিতে গিয়ে বলেছিলাম রিভার্স সুইপ খেলার সময় ব্যাটসম্যান মুহূর্তেই সম্পূর্ণভাবে ঘুরে গিয়ে ও ব্যাটের গ্রিপ পরিবর্তন করে "প্রায়" উল্টো স্ট্যান্স গ্রহন করেন। তখন প্রায় বলেছিলাম কারন কেভিন পিটারসন শুধু যে রিভার্স সুইপ খেলার সময় ঘুরেই যান তা নয়, বরং একজন বামহাতি ব্যাটসম্যানের পরিপূর্ণ স্ট্যান্স ধারন করেন। পিটারসন বেশ আগে থেকেই শটটি খেলতেন, তবে তখন বিষয়টি কেউ খেয়াল করেনি। কিন্তু ১৫ জুন, ২০০৮ এ পিটারসন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ওয়ানডে ম্যাচে স্কট স্টাইরিসের বলে তার ট্রেডমার্ক স্টাইলে ২ বার ছয় হাঁকান। পিটারসন স্ট্যান্স "সুইচ" তথা পরিবর্তন করে শটটি খেলেন বলে একে সুইচ হিটিংও (Switch Hitting) বলা হয়।

Nafis_Iftekhar_1224052188_6-Peterson_Kevin_Reverse_Sweep.jpg
ছবি: কেভিন পিটারসনের অনন্য রিভার্স সুইপ। ছয়!

Nafis_Iftekhar_1224052260_7-91018.jpg
ছবি: আবারো পিটারসনের রিভার্স সুইপ। আবারো ছয়! কিন্তু লং অফের উপর দিয়ে না লং অন?

Nafis_Iftekhar_1224052294_8-92756.jpg
ছবি: কে বলবে পিটারসন ডানহাতি!

ম্যাচ চলাকালীন সময়ে ধারাভাষ্যকার মাইকেল হোল্ডিং এর তীব্র বিরোধিতা করেন করেন। তিনি কেভিন পিটারসনের রিভার্স সুইপটিকে সুইপ বলতে নারাজ ছিলেন। তার মতে পিটারসন যেভাবে শটটি খেলেন তা একজন বামহাতি ব্যাটসম্যানের অর্থোডক্স সুইপ শট ছাড়া আর কিছু নয়। তিনি বলেন যে, এই একই কাজ যদি বোলার করতে যায়, অর্থাৎ ডানহাতি বোলার যদি বাম হাতে বল করতে চায় তবে তাকে আগে তা ব্যাটসম্যান ও আম্পায়ারকে অবহিত করতে হয় যেখানে কিনা ব্যাটসম্যানকে তার কিছুই করতে হচ্ছে না।
এর থেকে আরো কিছু নতুন সমস্যার কথা উঠে আসে। এর মধ্যে একটি হলো ব্যাটসম্যান এভাবে স্ট্যান্স পরিবর্তন করলে অফ সাইড হয়ে যায় লেগ সাইড আর লেগ সাইড হয়ে যায় অফ সাইড। কেননা ক্রিকেটের আইনে অফ সাইড ও লেগ সাইড নির্ধারিত হয় বোলার রানআপ থেকে দৌড়ে বল করতে আসার সময় ব্যাটসম্যানের স্ট্যান্স থেকে (সূত্র )। সেক্ষেত্রে এভাবে স্ট্যান্স পরিবর্তন করলে অফ স্টাম্প ও লেগ স্টাম্প জায়গা বদল করলে আম্পায়ার এলবিডব্লিউ সিদ্ধান্ত বিবেচনা করবেন কিভাবে? কারন আমরা তো জানি যে, লেগ স্টাম্পের বাইরে বল পিচ করলে এলবিডব্লিউ নাকচ হয়ে যায়। আম্পায়ার এক্ষেত্রে লেগ স্টাম্প ধরবেন কোন সময়েরটিকে – ব্যাটসম্যান স্ট্যান্স বদলের আগে না পরে? আবার ওয়াইডের ক্ষেত্রেও তাই। ওয়ানডেতে লেগ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে কোন বল অতিক্রম করলেই তা ওয়াইড দেয়া হয়। ব্যাটসম্যান এভাবে স্ট্যান্স পরিবর্তন করলে আম্পায়ার ওয়াইড দেয়ার ক্ষেত্রে কি বিচার করবেন?
অবশেষে ১৬ জুন, ২০০৮ এ এক জরুরী সভায় MCC অফিসিয়ালরা কেভিন পিটারসনের শটটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে বৈধতা দেন (View this link )। তারা বলেন: "কেভিন পিটারসনের শটটি ক্রিকেটকে আরো আনন্দময় করে তুলেছে এবং এটি একটি নান্দনিক সংযোজন। শটটি খেলতে ব্যাটসম্যানকে অনেক ঝুঁকি নিতে হচ্ছে এবং বিধায় বোলারদের উইকেট নেয়ার সুযোগ বাড়বে।"
তবে এই ক্ষেত্রে এলবিডব্লিউ ও ওয়াইডের ব্যাপারে আম্পায়ারের অবস্থান নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত আজো হয়নি।

লেখাটির ব্যাপারে আপনার মন্তব্য এখানে জানাতে পারেন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: